ডেস্ক: বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণার পর থেকে ভোটের দিন পর্যন্ত যে লাগামহীন সন্ত্রাস ও খুনোখুনির ঘটনা ঘটেছে, তাতে বেশ উদ্বিগ্ন কেন্দ্রীয় সরকার৷ আগেই পঞ্চায়েত নির্বাচন সংক্রান্ত আইন-শৃঙ্খলার বিষয়টি নিয়ে রাজ্য সরকারকে রিপোর্ট দিতে বলেছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ নবান্ন সেই রিপোর্ট পাঠিয়েও দেয়৷ কিন্তু রাজ্যের রিপোর্ট সন্তুষ্ট করতে পারেনি কেন্দ্রকে৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে ফের মুখ্যসচিবের কাছে নতুন করে পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হল। কারণ, কেন্দ্র মনে করছে নবান্ন যে রিপোর্ট পাঠিয়েছে তা স্পষ্ট নয়৷ এরফলে পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত যে বাড়ল তা বলার অপেক্ষা রাখে না৷

উল্লেখ্য, সোমবার পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভোটগ্রহণকে কেন্দ্র করে জেলায় জেলায় রক্তক্ষয়ী ভোটের ছবি উঠে আসে। বুথ দখল,ছাপ্পা, বোমাবাজি, গুলি, ব্যালট বক্স ছিনতাই, খুনোখুনি থেকে শুরু করে লাগামহীন সন্ত্রাসের অভিযোগ ওঠে। পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শুধু ভোটেরদিনই ২০জনেরও বেশি মানুষের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। আর অশান্তির এই খবর কেন্দ্রের কানে পৌঁছানোর পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে তড়ঘড়ি রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করা হয়েছিল।

সেই রিপোর্টে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক স্পষ্ট করে জানতে চেয়েছিল, ভোটকে কেন্দ্র করে ঠিক কতজনের প্রাণহানি হয়েছে? কতজন আহত? ওই নির্দিষ্ট স্থানে ঠিক কী কী ঘটনা ঘটেছিল? অশান্তি আটকাতে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে? কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রাজ্যের কাছে এই বিষয়গুলির খুঁটিনাটি জানতে চেয়ে রিপোর্ট তলব করেছিল৷ রাজ্যের পক্ষ থেকে সেই রিপোর্ট জমাও দেওয়া চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে৷

কিন্তু রাজ্যের পাঠানো রিপোর্টে অসন্তুষ্ট কেন্দ্র। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের দাবি, নবান্নের রিপোর্টটি অসম্পূর্ণ ও অস্পষ্ট। তাই পঞ্চায়েত ভোটের বিস্তারিত তথ্য চেয়ে এদিন ফের রাজ্যের কাছে রিপোর্ট তলব করেছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে ফের চিঠি পাঠানো হয়েছে মুখ্যসচিবের কাছে। কেন্দ্র যে বিষয়টিকে খুব গুরুত্ব সহকারে দেখতে চাইছে, এদিনের ঘটনায় তা স্পষ্ট৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here