মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘বৌদির পাঁপড় তাড়াতে পারে করোনাভাইরাস।’ সম্প্রতি এই তথ্য প্রকাশ্যে এনে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক ট্রোলড হয়েছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। তার দাবি ছিল এই পাপড় শরীরে তৈরি করে অ্যান্টিবডি। তবে তিনি নিজে পুরোপুরি ব্যর্থ শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি করতে। যার ফলেই করোনা আক্রান্ত হয়ে অবশেষে হাসপাতালে ভর্তি হলেন মন্ত্রী মশাই। তার শারীরিক অবস্থা খুব একটা ভাল না হওয়ায় বর্তমানে দিল্লির এইমস হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। গত কয়েকদিনে তার সংস্পর্শে যারা এসেছেন তাদের টেস্ট করানোর অনুরোধ করেছেন তিনি।

শনিবার এক কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী কৈলাশ চৌধুরী করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর পরই টুইট করে নিজের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আনেন মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। টুইটে তিনি লেখেন, ‘শরীরে করোনার প্রাথমিক লক্ষণ ধরা পড়ার পর আমি টেস্ট করাই। প্রথম টেস্ট নেগেটিভ এলেও আজ দ্বিতীয় টেস্ট পজিটিভ এসেছে। আমার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল তবুও চিকিৎসকের পরামর্শে এইমস হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি আমি। আমার অনুরোধ গত কয়েক দিনে যে সমস্ত ব্যক্তি আমার সংস্পর্শে এসেছেন তারা যেন নিজেদের করোনা টেস্ট করান এবং নিজের স্বাস্থ্যের দিকে খেয়াল রাখেন।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে এক বিজ্ঞাপন প্রচারে গিয়ে দেশবাসীকে বোকা বানিয়ে করোনা মোকাবিলায় ‘ভাবিজি পাঁপড়’ তথ্য সামনে আনেন এই মন্ত্রী। তার দাবি ছিল এই পাঁপড় খেলে ধারেকাছে ঘেঁষতে পারবে না করোনা। পাপড় এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গিয়ে তার দাবি ছিল মোদী সরকারের আত্মনির্ভর প্রকল্পের আওতায় পাঁপড় বানিয়েছে এই ব্র্যান্ডটি। বলার অপেক্ষা রাখে না পাপড় তত্ত্ব আদতে ছিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিজ্ঞাপনের চমক। এদিন তিনি নিজে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর তা আরও স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হুড়মুড়িয়ে বেড়ে চলেছে। বর্তমানে সংখ্যাটা ছাড়িয়ে গিয়েছে ২০ লক্ষর গণ্ডি। পরিস্থিতি সামাল দিতে যখন ভ্যাকসিনের খুঁজে উঠে পড়ে লেগেছে বিশ্বের বিজ্ঞানীরা। সেখানে বিভ্রান্তি তৈরি করে মাঝে মাঝেই দেশবাসীকে চমকে দিচ্ছেন বিজেপি নেতারা। শুরুটা হয়েছিল গোমূত্র থেকে এরপর সরষের তেল, সূর্যের আলোতে করোনা তাড়ানোর নিদান দিয়েছেন বিজেপি নেতারা। যোগগুরু রামদেব বাবার করোনিল ওষুধের ভাঁওতাবাজির পর ভাবিজির পাপড় তত্ত্ব সামনে খাড়া করে এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল। অবশ্য করোনা আক্রান্ত হয়ে তিনি নিজেই এখন ভর্তি হলেন হাসপাতালে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here