সুষমার ‘নোট’কে হাতিয়ার করেই মমতার ‘বাংলা’ নামে আপত্তি মোদী-শাহের

0
1485
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পশ্চিমবঙ্গের নাম পরিবর্তন করে রাখা হোক ‘বাংলা’। সেই বাম আমল থেকে কেন্দ্রের কাছে উঠে এসেছে এমনই দাবি। সেই দাবিকে আরও গুরুত্ব দিয়েছে রাজ্যের বর্তমান তৃণমূল সরকার। যদিও কেন্দ্রের তরফে আগেই নাকচ করে দেওয়া হয়েছে ‘বাংলা’ নাম। তবে হাল না ছাড়া মনোভাব নিয়ে ফের একই অনুরোধে মোদী শাহ সাক্ষাতে গিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে পশ্চিমবঙ্গের নাম বদলে ‘বাংলা’ এ দাবি মানতে রাজি নয় কেন্দ্র। যার পিছনে কারণ হিসাবে খাঁড়া করা হচ্ছে সদ্য প্রয়াত বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজের একটি নোট। যে নোটে তাঁর মত ছিল, রাজ্যের নাম বাংলা করলে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সঙ্গে রাজ্যের নাম গুলিয়ে যেতে পারে।

জানা গিয়েছে, বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে উঠে এসেছিল বাংলা নামের প্রসঙ্গ। সেখানে সূত্রের খবর, কেন্দ্রের তরফে বিকল্প বেশকিছু নামের প্রস্তাব রাজ্যকে দিতে রাজি কেন্দ্র। এবার কেন্দ্রের কোনও একটি নাম যদি রাজ্য সরকারের পছন্দ হয় সেক্ষেত্রে আর কোনও সমস্যা হবে না। তবে রাজ্য সরকারের ইচ্ছা একান্তই যদি বাংলা নামে কেন্দ্রের আপত্তি থেকে থাকে তবে পসচিমকবঙ্গের নাম রাখা হোক বঙ্গ। এক্ষেত্রে রাজ্য কোনওরূপ অনড় অবস্থান নেবে না বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, কেন্দ্র যদি কোনও সাজেশান দেয় তবে সেটা বাংলা নামকে কেন্দ্র করে দেওয়া হোক। কারণ বাংলা নামের সঙ্গে সেন্টিমেন্ট জড়িয়ে রয়েছে।

তাছাড়াও, ইতিমধ্যেই বাংলা নামে বিধানসভায় বিল পাশ করে ফেলেছে রাজ্য। এরপর কেন্দ্র যদি নতুন করে কোনও নাম দেয়, সেখানে বাংলার সঙ্গে আগে বা পরে যদি কোনও শব্দ জোড়া হয় সেক্ষেত্রে নতুন করে আবার সংশোধনী পাশ করতে হবে বিধানসভায়। নতুন করে তা করতে গেলে, সিপিএম-কংগ্রেস এঁরা তৃণমূলের সঙ্গে সহমত হবে কিনা সেটাও দেখার বিষয়। যদিও গোটা বিষয়টাই নির্ভর করছে কেন্দ্র কী সাজেশন দেয় তার উপর। তবে সুষমার মতকে মেনে নিয়ে ‘বাংলা’ নাম যে কোনও ভাবেই হবে না তা একরকম স্পষ্ট করে দিয়েছেন মোদী-শাহ জুটি। এখন দেখার মমতা দাবি মতো বিকল্প বঙ্গ হয় নাকি, বাংলার সঙ্গে আগে বা পরে অন্য কোনও শব্দ যুক্ত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here