news national

মহানগর ডেস্ক: দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। গত এক সপ্তাহে দেশে ১০ লক্ষের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্র বিমান পরিষেবায় নতুন করে একাধিক বিধি নিষেধ জারি করেছে। দুই ঘণ্টার কম বিমান যাত্রায় কোনও মিল দেওয়া হবে না বলে কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

দেশে করোনা পরিস্থিতি লাগাম ছাড়া। করোনার টিকা করণ শুরু হয়েছে। তারপরেও করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। এর আগে করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় বিমান পরিষেবায় একধিক বিধি নিষেধ জারি করা হয়েছে। কিছুদিন আগেই জানানো হয়েছিল, কোনও ব্যক্তি বিমানে সঠিকভাবে মাস্ক না পরলে, তাঁকে বিমানে উঠতে দেওয়া হবে না। কোনও ব্যক্তি বিমানের ভিতর সঠিকভাবে মাস্ক না পরলে, তাকে অবাঞ্ছিত যাত্রী হিসেবে ঘোষণা করা হবে। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি এয়ারলায়েন্স একাধিক ব্যক্তিকে অবাঞ্ছিত যাত্রী হিসেবে ঘোষণা করেছে।

সোমবার স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ১,৬৮,৯১২ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনায় ৯০৪ জন মারা গিয়েছে। দেশে করোনার টিকাকরণ জোর কদমে শুরু হয়েছে। দেশে নয় কোটির বেশি মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। দেশে করোনার টিকাকরণকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টিকা উৎসব বলে উল্লেখ করেছেন। কিন্তু একের পর এক রাজ্যে করোনার ঘাটতির খবর প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে। মহারাষ্ট্র করোনার টিকার অভাবে ২৬ টি কেন্দ্র বন্ধ হয়ে গিয়েছে। পাশাপাশি অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা, পঞ্জাব, রাজস্থানে করোনার টিকার ঘাটতি দেখা গিয়েছে। প্রতিটি রাজ্য জানিয়েছে, তিন দিনের পর তাদের আর করোনার টিকার কোনও স্টক থাকবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here