ডেস্ক: ভারতীয় বায়ুসেনার জন্য সুখবর নিয়ে আসতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সূত্রের খবর, চলতি বছর অক্টোবর মাসেই রাশিয়া থেকে ২০০টি কামোভ হেলিকপ্টার নিয়ে আসার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। এই চুক্তি রাশিয়ান হেলিকপ্টারস এবং ভারতীয় সরকারি সংস্থা হিন্দুস্থান এয়ারোন্যটিকলের মধ্যে স্বাক্ষর করা হবে। প্রতিরক্ষা বিভাগের আধিকারিকেরা জানাচ্ছেন, এই চুক্তির সকল প্রস্তুতি সেরে ফেলা হয়েছে। কারণ, আগামী চার মাসের মধ্যেই যে কোনও প্রকারে এই চুক্তি সই করতে চায় ভারত। ২০১৫ সালের ডিসেম্বর মাসে মস্কো সফরের সময় রাশিয়ার সঙ্গে এই চুক্তির আগাম প্রস্তাব সেরে রেখেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদী।

ভারতীয় বায়ুসেনার চিতা এবং চেতক নামের যেই হেলিকপ্টারগুলি রয়েছে, বয়সের চাপে তা অনেকটাই পুরনো হয়ে গিয়েছে। সেই হেলিকপ্টার গুলিকে সরিয়েই নতুন জায়গা নেবে রাশিয়ার অত্যাধুনিক কামোভ হেলিকপ্টার। তবে কেবল বায়ুসেনার ব্যবহারের জন্য এই হেলিকপ্টার আমদানি করা হবে না। ভারতের স্থল সেনাও যাতে এর ব্যবহার করতে পারে সেই কারণেই একেবারে ২০০টি হেলিকপ্টার আমদানি করা হচ্ছে।

এই চুক্তির আরেকটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, প্রধানমন্ত্রীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পের আওতায় এগুলি তৈরি হবে। ফলে ৬০টি কামোভ হেলিকপ্টার রেডিমেড অবস্থায় এলেও বাকি ১৪০টি তৈরি হবে দেশের মাটিতেই। মূলত চিতা এবং চেতককে অবসরে পাঠিয়ে তাদের জায়গা নিতেই সেনাবাহিনীতে আসবে এই হেলিকপ্টার। সূত্রের খবর, ২০২২-এর মধ্যেই প্রথম ৬০টি হেলিকপ্টার পেয়ে যাবে ভারত।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here