অ-বিজেপি সরকার গড়ার স্বপ্ন দেখছে বিরোধীরা, কালীঘাটে মমতা-চন্দ্রবাবু বৈঠক

0
56
Untitled-2-3

মহানগর ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটের প্রতিটি বুথ ফেরত্ সমীক্ষার ফলেই এনডিএ-র জয়জয়কারের ছবি উঠে এসেছে। যদিও বিরোধীরা এই ফলাফল মানতে নারাজ। বরং জয়ের ব্যাপারেই আশাবাদী তারা। তাই অ-বিজেপি জোট সরকার গড়ার জন্য এখন থেকেই পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করতে তত্পর হয়েছেন বিরোধী নেতারা। এই বিষয়ে আলোচনার জন্য সোমবার কলকাতায় এসে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাত্ করেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। তারপর কালীঘাটে নিজের বাড়িতে টিডিএস নেতার সঙ্গে বৈঠকে বসেন মমতা।

এদিন বিকাল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ কালীঘাটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পৌঁছোন চন্দ্রবাবু নাইডু। তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় উত্তরীয় পরিয়ে তাঁকে স্বাগত জানান। রাজ্যের মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিমও সেখানে উপস্থিত ছিলেন। তারপর তৃণমূল সুপ্রিমোর সঙ্গে বৈঠকে বসেন চন্দ্রবাবু। প্রায় ৪৫ মিনিট এই বৈঠক চলে। বৈঠক শেষে কেউই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হননি। মমতার বাড়ি থেকে বেরিয়ে সোজা গাড়িতে উঠে যান অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বৈঠকে ঠিক কী আলোচনা হয়েছে, সে ব্যাপারে মুখ খোলেননি। তবে বিজেপি-বিরোধী জোটের এই দুই প্রধান কারিগর যে মহাজোটের রণকৌশল নিয়েই আলোচনা সাড়লেন তা একপ্রকার স্পষ্ট।

সূত্রের খবর, ২৩ মে ভোটের ফলাফলের সঙ্গে যদি বুথ ফেরত এই সমীক্ষার ফল না মেলে, যদি মহাজোট সরকার গড়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়, তাহলে পরবর্তী পদক্ষেপ কী হওয়া উচিত, তার খসড়া করতেই বৈঠকে বসেন মমতা-চন্দ্রবাবু। সব জোট শরিকদের কীভাবে এক ছাতার নীচে নিয়ে আসা যায়, কীভাবে বিরোধী নেতাদের মধ্যে ঐক্যমত্য গড়ে তোলা যায় এবং কেন্দ্রে জোট সরকার গড়ার সম্ভাবনা তৈরি হলে নেতৃত্বে কাকে বসানো উচিত, তা নিয়েই দুজনের মধ্যে আলোচনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। সবমিলিয়ে, মমতা-চন্দ্রবাবুর এদিনের বৈঠকে বিজেপি-বিরোধী জোট সরকারের রূপরেখা তৈরি করাই মূল আলোচ্য বিষয় ছিল বলে প্রাথমিক সূত্রে খবর। এদিন চন্দ্রবাবু নাইডু কলকাতায় আসার পরই সপা নেতা অখিলেশ যাদবের সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন মমতা।

প্রসঙ্গত, অ-বিজেপি জোট সরকার গড়ার জন্য বিরোধী নেতাদের এককাট্টা করার উদ্যোগ ভোটের অনেক আগে থেকেই শুরু করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটের মধ্যেও সেই কাজ চালিয়ে গিয়েছে চন্দ্রবাবু নাইডু। এবার ভোট-পরবর্তী সময়েও এনডিএ-বিরোধী নেতাদের মধ্যে সূত্রধরের ভূমিকা পালন করছেন তিনি। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীই চন্দ্রবাবুর নাইডুর মাধ্যমে বিরোধী দলগুলিকে এক সুতোয় বাঁধতে চাইছেন বলে সূত্রের খবর। কেননা ভোট চলাকালীনই রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন চন্দ্রবাবু। ভোটপর্ব শেষ হওয়ার পরেও তিনি রাহুল গান্ধী এবং ইউপিএ সুপ্রিমো সনিয়া গান্ধীর সঙ্গে বৈঠকে বসেন। তারপরই এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার, এমনকি সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গেও সাক্ষাত্ করেন তিনি। গত রবিবার উত্তরপ্রদেশে গিয়ে সপা নেতা অখিলেশ যাদব এবং বসপা প্রধান মায়াবতীর সঙ্গেও দেখা করেছেন। এবার কলকাতায় এসে তৃণমূল সুপ্রিমোর সঙ্গে বৈঠক করে জোট জল্পনার ইঙ্গিতই স্পষ্ট করলেন চন্দ্রবাবু নাইডু।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here