Home Latest News লোকসভার সঙ্গে বিধানসভাতেও ধরাশায়ী টিডিপি, মুখ্যমন্ত্রীর পদে ইস্তফা চন্দ্রবাবুর

লোকসভার সঙ্গে বিধানসভাতেও ধরাশায়ী টিডিপি, মুখ্যমন্ত্রীর পদে ইস্তফা চন্দ্রবাবুর

0
লোকসভার সঙ্গে বিধানসভাতেও ধরাশায়ী টিডিপি, মুখ্যমন্ত্রীর পদে ইস্তফা চন্দ্রবাবুর
Parul

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রে অ-বিজেপি জোটসরকার গড়ার সব হিসেব উলটে দিল ২৩ মে-র ফলাফল। প্রথম কয়েক রাউণ্ড গণনার পরই গেরুয়া ঝড়ে সাফ হয়ে গিয়েছে মহাজোট সরকার গড়ার স্বপ্ন। পাশাপাশি অন্ধ্রপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনেও শাসকদলকে পিছনে ফেলে দিয়েছে জগন্মোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস। আর তাই ভোটের ফলাফল সম্পূর্ণ ঘোষিত হওয়ার আগেই অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা করলেন মহাজোটের অন্যতম সূত্রধর তথা তেলুগু দেশম পার্টি (টিডিপি)-র প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু।

অন্ধ্রপ্রদেশে লোকসভা ভোটের পাশাপাশি বিধানসভা ভোটের ফলও বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়। এই দুটি নির্বাচনের ফলেই রাজ্যে এগিয়ে জগন্মোহন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস। দুপুর ১২টা পর্যন্ত রাজ্যের মোট ১৭৫টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১৪২টি আসনেই এগিয়ে রয়েছে ওয়াইএসআর কংগ্রেস। মাত্র ২৭টি আসনে এগিয়ে রয়েছে টিডিপি। অন্যদিকে, ২৫ টি লোকসভা আসনের মধ্যে ২৪টিতে এগিয়ে রয়েছে জগন্মোহন রেড্ডির দল। টিডিপি এগিয়ে রয়েছে মাত্র ১টি আসনে। সবমিলিয়ে শেষ পাওয়া খবর পর্যন্ত, অন্ধ্রপ্রদেশে একেবারে ধরাশায়ী তেলুগু দেশম পার্টি। শেষ রাউণ্ডের গণনাতেও এই ফলের যে খুব একটা পরিবর্তন হবে, তা নয়। তাই সম্পূর্ণ গণনা হওয়ার আগেই মুখ্যমন্ত্রীত্ব থেকে পদত্যাগ করার ঘোষণা করলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। এদিন সন্ধ্যায় অন্ধ্রপ্রদেশের রাজ্যপাল ইএসএল নরসিমহানকে ইস্তফা দেবেন তিনি।

প্রসঙ্গত, এবারে লোকসভা নির্বাচনের শুরু থেকেই কেন্দ্রে অ-বিজেপি সরকার গড়ার ব্যাপারে আশাবাদী ছিলেন বিরোধীরা। বিশেষত চন্দ্রবাবু নাইডু ভীষণ আত্মবিশ্বাসী ছিলেন। সমস্ত বিরোধী দলগুলিকে একজোট করার দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন তিনি। নির্বাচনের শুরু থেকেই সারা দেশ ঘুরে বিরোধীদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তিনি। অন্যদিকে, রাজ্যে তাঁর সরকারের স্থায়িত্বের ব্যাপারেও নিশ্চিত ছিলেন চন্দ্রবাবু। কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশের শুরু থেকেই তাঁর সমস্ত আত্মবিশ্বাস বুদবুদের মতো উবে গেল। অন্যদিকে, রাজ্যে সরকার গড়ার ব্যাপারে ওয়াইএসআর কংগ্রেস প্রধান জগন্মোহন রেড্ডির আশা-ই সত্যি হল। এবারের অন্ধ্রপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে চন্দ্রবাবুর উদ্দেশ্যে তাঁর নির্বাচনী স্লোগান ছিল ‘বাই বাই বাবু’। অবশেষে সেটাই বাস্তবায়িত হল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here