ডেস্ক: অনুমোদন ছাড়াই কানহাইয়া কুমারের বিরুদ্ধে চার্জশিট কেন? দিল্লি পুলিশকে প্রশ্ন দিল্লির এক আদালতের। সদুত্তর দিতে পারেনি দিল্লি পুলিশ। অতিরিক্ত সময় চেয়ে নিয়েছে তারা। সমগ্র ঘটনায় রীতিমত অবাক বিচারপতি। শুনানি মুলতুবি করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দীপক শেরওয়াত ফেব্রুয়ারির ৬ তারিখ পর্যন্ত তিনি পুলিশকে অতিরিক্ত সময় দিয়েছেন। যদিও পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ১০ দিনের মধ্যেই প্রয়োজনীয় অনুমোদন তারা আদায় করতে পারবেন।

বামপন্থী নেতা কানহাইয়া কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০১৬ সালে এই মিছিলে তিনি নাকি কিছু বিদ্বেষ মূলক শ্লোগান দিয়েছিলেন। তারই প্রেক্ষিতে ১৪ জানুয়ারি কানহাইয়ার বিরুদ্ধে চার্জশিট ফাইল করেছিল দিল্লি পুলিশ। কিন্তু তার যে প্রয়োজনীয় অনুমোদনই নেওয়া হয়নি। কানহাইয়া ছাড়াও অভিযোগ রয়েছে আরও দুই ছাত্র নেতার বিরুদ্ধে। জহওরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ওমর খালিদ এবং অনির্বাণ ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধেও রয়েছে একই অভিযোগ। উক্ত দুই ছাত্র নেতা নাকি মিছিল চলাকালীন দেশ বিরোধী শ্লোগান দিচ্ছেলেন।

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, মিছিলে কয়েক জনকে বাদ দিয়ে কাউকেই চিহ্নিত করা সম্ভব হয়নি। এক ভিডিও ক্লপিং অনুযায়ী, ওমর, অনির্বাণ এবং আশুতোষ নামের তিন ছাত্র শ্লোগান দিচ্ছিলেন। সেখানে ওমর এবং অনির্বাণের বিরুদ্ধে দেশ বিরোধী শ্লোগান দেওয়ার অভিযোগ থাকলেও, আশুতোষ আপাতত অভিযোগ মুক্ত। চার্জশিটেও তাই তার নাম উল্লেখ করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here