ডেস্ক: এখন সবাই চায় ‘ইঞ্জিয়ার’ অথবা ‘এমবিএ পাশ’ হতে, আর দেশের সন্তানদের ‘রোবোটিক’ উচ্চাকাঙ্ক্ষা মেটাতে ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠছে একের পর এক সরকারি-বেসিরকারি ইনস্টিটিউট। ইঞ্জিয়ারিং থেকে শুরু করে ব্যাংকিং-ম্যানেজমেন্ট সমস্ত শিক্ষাব্যবস্থায় রমরমিয়ে চলছে চলছে দুর্নীতি। রাকেশ সিং(ইমরান হাশমি) এমন একজন ব্যক্তি, যিনি ‘এক্সাম টপার’ দের একাট্টা করে, গ্রুপ বানিয়ে, তাদের মাধ্যমে সাধারণ ছাত্রদের নামী-নামী ইনস্টিটিউটে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাইয়ে দেন। তার কাছে টাকাই সব, টাকার বদলে তিনি নামী ইনস্টিটিউটে ‘সিট’ পাওয়ার ‘গ্যারান্টি’ দেন। রাকেশ বিশ্বাস করেন পরিশ্রম করে টাকা উপার্জনটা সাধারণের জন্য, বড়লোক ও প্রতিপত্তিশালীদের জন্য নয়। বড়লোক ও প্রতিপত্তিশালীরা সবসময় ‘দুর্নীতি’র মাধ্যমে টাকা উপার্জনেই বিশ্বাস রাখেন। তিনিও সেই পথই অবলম্বন করছেন। কিন্তু রাকেশ কি এই চক্র চালিয়ে যেতে পারবে, নাকি টাকা পয়সার বদলে তার জন্য অন্য কিছু অপেক্ষা করছে, তা জানা যাবে ‘চিট ইন্ডিয়া’ রিলিজের পরই, কারণ এতক্ষণ যা পড়লেন তার সবটাই ছিল ছবির ট্রেলার।

ভারতীয় শিক্ষাব্যবস্থায় অহরহ চলছে দুর্নীতি, প্রতিদিন নিয়মমাফিক লক্ষ লক্ষ চাকরির শূন্যপদের আবেদন জমা পড়ে, লক্ষ লক্ষ ছেলে-মেয়ে সেই পরীক্ষায়ও বসে, কিন্তু তারপর? সেইসব আবেদন ও পরীক্ষার ফলাফল সবই চাপা পড়ে যায় বড় বড় মাথাদের টাকার খেলায়। এই দুর্নীতি আজকের ঘটনা নয়, দীর্ঘদিন ধরে এই সমস্যায় জর্জরিত দেশের সাধারণ নাগরিক। ‘TEACH’ শব্দের অ্যালফাবেটগুলি অন্যরকমভাবে সাজালে আর একটি শব্দ পাওয়া যায়, ‘CHEAT’। এবার সেই ঘটনাই বড়পর্দায় তুলে ধরতে, বহুদিন বাদে পর্দায় ফিরতে চলেছেন অভিনেতা ইমরান হাশমি। ২০১৬ তে তাঁর অভিনীত ছবি ‘রাজ: রিবুট’ এর পর ২০১৭ তে ‘বাদশাহ’ তেমন সাফল্য পায়নি। এবার ‘চিট ইন্ডিয়া’ নিয়ে বড়পর্দায় ফিরছেন বলিউডের ‘সিরিয়াল কিসার বয়’। তাঁর ফ্যানেদের মধ্যে এই ছবি ঘিরে উত্তেজনা তুঙ্গে।

‘জান্নাত’-এ যেমন ক্রিকেট দুনিয়ার অন্ধকার দিক ছিল, ইমরান অভিনীত ‘চিট ইন্ডিয়া’তে তেমনই রয়েছে ভারতের শিক্ষাব্যাবস্থায় ঘটা নানা দুর্নীতি ও অপরাধের অন্ধকার দিক। আর এই প্রেক্ষাপটকেই ছবির জন্য বেছে নিয়েছিলেন ‘গুলাব গ্যাং’ খ্যাত সৌমিক সেন। ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছে এলিপসিস এন্টারটেইনমেন্ট, টি-সিরিজ আর ইমরান হাশমি ফিল্মস। ছবিতে ডেবিউ করতে চলেছেন অভিনেত্রী শ্রেয়া ধন্বন্তরি। যদিও টিজারে তাঁকে দেখা যায়নি।

এছাড়াও ছবিতে ইমরান হাসমি ছাড়াও কাজ করছেন উত্তরপ্রদেশের ৭৫ জনেরও বেশি অভিনেতা। ওই রাজ্যের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদেরও এই ছবিতে কাস্ট করা হয়েছে। ২০১৯-এর ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পেতে চলেছে ছবিটি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here