kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: নকল করার প্রবণতা সব পেশাতেই কমবেশি আছে। কিন্তু বেশি চোখে পড়ে রাজনীতিতে। আজ কোনও দল নতুন কিছু একটা করলে পরদিনই অন্যদল সেটার একটু বদল এনে নিজের মতো করার চেষ্টা করে। কমবেশি সব রাজনৈতিক দলের ক্ষেত্রেই এই কথা প্রযোজ্য।

গতকাল স্কুটি চালিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পেট্রোপণ্যের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে তিনি বেশ কিছুদিন ধরে এই ইস্যুতে কেন্দ্রকে একাধিকবার কাঠগড়ায় তুলেছেন। গতকাল তিনি প্রতিবাদস্বরূপ বাড়ি থেকে নবান্ন পর্যন্ত স্কুটি চেপে যান। ফেরেনও একই ভাবে। শুধু তাই নয়, তিনি নিজেই কিছুটা পথ স্কুটি চালান।

আর মুখ্যমন্ত্রীর স্কুটি চালানোর ঘটনা সংবাদ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। নিমেষে তিনি প্রচারের আলোর টেনে নেন নিজের দিকে। তৃণমূলের তরফে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে যে প্রতিবাদ চলছে, তা ভিন্ন মাত্রা পেয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর স্কুটি চালানোর ঘটনায়। গতকাল বিজেপি কটাক্ষ করেছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। তাঁদের তরফে বলা হয়েছিল, যিনি স্কুটি চালাতে পারেন না ঠিকমতো, তিনি কী করে রাজ্য চালাবেন? অবশ্য পরদিন সেই বিজেপিকে দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রীর দেখানো পথে হাঁটতে।

​‘পরিবর্তন যাত্রা’ উপলক্ষে শহরে এসেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। গড়িয়া থেকে পরিবর্তন যাত্রায় শামিল হন। তবে রথে চেপে তিনি শুধু মিছিলে অংশ নেননি। মুখ্যমন্ত্রীর মতো স্কুটি হাতে দেখা গেল তাঁকে। তবে অনভ্যস্ত হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রীকে দক্ষ হাতে স্কুটি চালাতে দেখা যায়নি। কিন্তু স্মৃতি ইরানি যে স্কুটি চালাতে যথেষ্ট দক্ষ,  তা এদিন দেখা যায়। ভোটের মুখে স্কুটি যে এবার একটা অন্য হাতিয়ার হতে চলেছে তৃণমূল বিজেপির কাছে, তা কার্যত পরিষ্কার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here