kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বীরভূম: ‘দিদির পুলিশের ওপর দিদিরই বিশ্বাস নেই এখন।‘ বীরভূমের দুবরাজপুর আদালতে একটি মামলায় হাজিরা দিতে এমন কথা বললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ আদালত থেকে বেরিয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি সম্পর্কে বলেন, ‘করোনা বাড়ছে, দুর্নীতিও বাড়ছে। এই সরকারের কোনও কর্মক্ষমতা নেই আটকাবার৷ তারা সব কিছুতে যুক্ত হয়ে গিয়েছে৷ প্রথমে চেষ্টা করে চাপা দেওয়ার, পরে পালিয়ে যায়।‘ হেমতাবাদের বিধায়কের মৃত্যু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘যে হিংসা-খুন হচ্ছে তা পশ্চিমবঙ্গের সংস্কৃতির বিরোধী। তাই গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য আমরা লড়াই করছি। এই লড়াইয়ের পরিসমাপ্তি হবে ২০২১-এ বিধানসভা নির্বাচনের মধ্য দিয়ে৷ সাধারণ মানুষের প্রতি আমাদের আস্থা আছে।‘

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের সময় উসকানিমূলক কথা বলার জন্য দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল৷ সেই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দিদির পুলিশের ওপর দিদিরই বিশ্বাস নেই এখন। উনিই বলেছেন, চাবকাব, প্যান্ট খুলে নেব৷ এগুলো আমি বলিনি৷ এখানে (বীরভূমে) একজন নেতা আছে যার অক্সিজেন কম। তিনি বলেছেন পুলিশকে বোম মারবেন। সেই পুলিশ দিয়ে কী হবে? যে পুলিশ নিজের সুরক্ষাই করতে পারে না৷ টেবিলের তলায়, আলমারির পেছনে লুকোতে হয়৷ তাই আমরা বলেছি দাদার পুলিশই ঠিক আছে৷ তাই দাদার পুলিশ নিয়েই আমি ঘুরছি।‘

উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে এসে দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, ‘দিদির পুলিশকে বুথের কাছে ঘেঁষতে দেব না। বুথ লুটের চেষ্টা করলে দিল্লি পুলিশের সঙ্গে থাকবে বিজেপি কর্মীরা। শুকনো বাঁশের লাঠি তৈরি আছে।‘ এর প্রেক্ষিতে ২০১৯ সালের ২৩ এপ্রিল নির্বাচন  কমিশনের নির্দেশে দুবরাজপুরের বিডিও অনিরুদ্ধ রায় দুবরাজপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ৫০৬, ৫০৬ বি ও ১২০ বি আইপিসিতে মামলা রুজু হয়। এদিন দুবরাজপুর আদালতে ১ হাজার টাকা বন্ডে জামিন পান দিলীপ ঘোষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here