kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: জেলা সফরের আগে সরকারের অনুমতি নেওয়া দরকার এবং তারপর জেলা প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে সফরসূচি চূড়ান্ত করার কথা। সরকারি সফরের পাশাপাশি ব্যক্তিগত সফরের ক্ষেত্রেও এই নীতি মানতে হয় রাজ্যপালকে। কিন্তু এই রাজ্যের রাজ্যপালের ক্ষেত্রে এমনটা হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামীকাল কোচবিহারের শীতলকুচিতে যাওয়ার কথা আছে রাজ্যপালের।

সেই সফর নিয়ে রাজ্য সরকারের সঙ্গে তীব্র টানাপোড়েন শুরু হয়েছে রাজ্যপালের। সরকারি নিয়ম এবং বিধি না মেনে রাজ্যপাল একতরফা ভাবে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বলে অভিযোগ করে তাঁকে চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোচবিহার-সহ হিংসাদীর্ণ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শনের কথা আছে রাজ্যপালের। মুখ্যমন্ত্রীর লেখা চিঠিতে সেইসব সফর নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়েছে। রাজ্যপালের সফরের ক্ষেত্রে সরকারি রীতি হল রাজ্য সরকারের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট ডিভিশনের কমিশনার ও সেই জেলার জেলাশাসককে তার সফরের বিষয়টি জানানো দরকার। কিন্তু রাজ্যপাল এক্ষেত্রে কোনওটাই করেননি বলে দাবি করা হয়েছে। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় তাঁর পুরো সফরের বিষয়টি নেট মাধ্যমে জানাচ্ছেন।

উল্লেখ্য, গত সোমবার সোমবার শপথ নিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রীরা। শপথগ্রহণ শেষে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় বলেছিলেন, রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি হয়েছে। প্রশাসনকে বারবার জানিয়েও কাজ হয়নি। তাই এবার তিনি মাঠে নেমে দেখতে চলেছেন রাজ্যের পরিস্থিতি। অর্থাৎ, সরাসরি তিনি বলেছিলেন রাজ্যের হিংসা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করবেন তিনি। তাঁর সেই ঘোষণা মতো গতকাল রাজ্যপাল জানিয়েছেন তাঁর প্রথম গন্তব্য কী হতে চলেছে। মঙ্গলবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় টুইট করে জানিয়েছেন, আগামী ১৩ মে অর্থাৎ আগামীকাল তিনি যাবেন কোচবিহারের শীতলকুচিতে। তাঁর এই সফর নিয়ে রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে সংঘাত শুরু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here