kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: ডান হাত ভাঙলেও বাঁ হাতে করা হল প্লাস্টার! ঘটনাটিকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল মুর্শিদাবাদের জলঙ্গি থানার ঘোষপাড়া এলাকায়। জানা গিয়েছে, রিয়াজুল মোল্লা নামে ১৬ মাসের এক শিশুর হাত ভেঙে যায়। পরিবারের লোকজন তাকে ডোমকল হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে অস্থি বিশেষজ্ঞ ডাঃ কুশল নন্দীর তত্ত্বাবধানে তার চিকিৎসা চলে। তিনি এক্স-রে করতে বলে রিয়াজুলের পরিবারকে তার নিজস্ব চেম্বারে আসার জন্য বলেন।

রিয়াজুল মোল্লার পরিবারের অভিযোগ, এক্স-রে রিপোর্ট দেখার পর চিকিৎসক কুশল নন্দী শুক্রবার রিয়াজুলের ডান হাতের বদলে বাম হাত প্লাস্টার করে দেন!

রোগীর পরিবারের আরও অভিযোগ, বাম হাত প্লাস্টার করার সময় শিশুটির কাকিমা বার বার বারণ করা সত্ত্বেও চিকিৎসক তাঁর কথা শোনেননি। এদিকে এই ঘটনায় অভিযুক্ত চিকিৎসকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে রোগীর পরিবার। তারা ইতিমধ্যে স্থানীয় জলঙ্গি থানার দারস্থ হয়েছেন। কিন্তু, সেখান থেকে তাদের ডোমকল থানায় অভিযোগ করার জন্য বলা হয়েছে।

এদিকে, অভিযুক্ত চিকিৎসক কুশল নন্দী জানিয়েছেন, এক্স-রে রিপোর্টে বাম হাত উল্লেখ থাকায় তিনি বাম হাতেই প্লাস্টার করে দেন। সেই সময় রোগীর পরিবারও নাকি তাকে বাধা দেননি। তবে তিনি পরবর্তীতে ডান হাতে প্লাস্টার করে দেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন। এই ঘটনা সামনে আসতে ওই চিকিৎসকের কাণ্ডজ্ঞান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এলাকার লোকজন। তাঁদের দাবি, এক্স-রে রিপোর্টে বাম হাত উল্লেখ থাকলেও ওই চিকিৎসককে বারবার অনুরোধ করে বলা হয়, ভেঙেছে ডান হাত। কিন্তু, তিনি কারও কথায় কর্ণপাত করেননি। তিনি বা-হাতে প্লাস্টার করে দেন। তাঁর শাস্তি দাবি করেছেন এলাকার লোকজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here