kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গত কয়েকমাস ধরে ছেলেধরা আতঙ্ক ছেয়েছে পুরুলিয়ায় বিভিন্ন গ্রামে। পরিস্থিতি এমন যে বাচ্চাকে স্কুল বা টিউশন যেতে পাঠাতেও ভয় পাচ্ছেন অভিভাবকরা। পরিস্থিতির জেরে গত কয়েকদিনে অচেনা কাউকে এলাকায় দেখলেই চলছে জেরাপর্ব ও মারধর। সেই ঘটনাতেই এবার অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি তৈরি হল পুরুলিয়ার উত্তাল পাড়া থানার আনাড়া ফাঁড়ি এলাকায়। তিনজন ছেলেধরাকে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করে আড়াল করছে পুলিশ। এই অভিযোগেই পুলিশ ফাঁড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখাল উত্তেজিত জনতা। আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হল একটি বলেরো গাড়িতে। গোটা ঘটনায় প্রবল রোষে ফুঁসছে এলাকা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন এক মহিলাকে বাজার থেকে বুলেরো গাড়িতে তোলার চেষ্টা করলে ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে পড়ে পুরুলিয়ার পাড়া থানার আনাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে। উত্তেজিত জনতা জ্বালিয়ে দেয় বুলেরো গাড়িটি। বুলেরোর দুই ব‍্যক্তি পালিয়ে গেলেও এক জনকে ব‍্যপক মারধোর করে উত্তেজিত জনতা। পুলিশ তাকে উদ্ধার করে আনাড়া পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে এলে উত্তেজিত জনতা ব‍্যপক হামলা চালায়। পরে বিশাল পুলিশ বাহিনি এসে জনতাকে ছত্র ভঙ্গ করে। ফাটানো হয় কয়েটি শেল। পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালানোর অভিযোগে বেশ কয়েক জনকে আটক করে পুলিশ। গোটা ঘটনার এলাকায় ব‍্যপক উত্তেজনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, পুলিশ ও প্রশাসনের তরফে ছেলেধরা গুজবে কান না দেওয়ার জন্য বারবার সতর্ক করা সত্ত্বেও আতঙ্ক কাটছে না পুরুলিয়ায়। গত সোমবারই পুরুলিয়ার বরাবাজার থানার লটপদা গ্রামে এক ব্যাক্তিকে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনি দিয়েছিল এলাকার বাসিন্দারা। পরে জানা যায় উত্তেজিত জনতার হামলার স্বীকার হওয়া ওই ব্যক্তি মানসিক ভারসাম্যহীন। তাঁর নাম রামকৃষ্ণ কর্মকার। এরপর ফের সেই আতঙ্কে উত্তাল হয়ে উঠল পুরুলিয়া।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here