news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রায় সাড়ে তিন সপ্তাহ ধরে পূর্ব লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি ভারত ও চিনের সেনা। ইতিমধ্যেই দুই পক্ষের মধ্যেই বেশ কিছু হাতাহাতির ঘটনাও ঘটেছে। মাঝে দুই দেশই সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা ও অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র মজুত করা শুরু করেছিল। ফলে একটা যুদ্ধের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু এরই মাঝে সূত্রের খবর, দুই দেশই সীমান্ত থেকে অতিরিক্ত সেনা প্রত্যাহার শুরু করে দিয়েছে।

সরকারি সূত্রে খবর, সীমান্তে স্রেফ কিছু জায়গা থেকেই ‘ভদ্রতার খাতিরে’ অতিরিক্ত সেনা প্রত্যাহার করেছে দুই দেশ। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে গোটা সীমান্তেই শান্তি ফিরে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। যদিও, গালোয়ান নালা অঞ্চলে দুই দেশেরই কয়েক হাজার সেনা মোতায়েন রয়েছে। সেখানে চিন ইতিমধ্যেই একটি ঘাঁটি নির্মাণ করেছে, ভারতও পাল্টা ঘাঁটি নির্মাণ করছে।

প্রায় ২৬ দিন ধরে লাইন অফ একচুয়াল কন্ট্রোলে মুখোমুখি দুই দেশের সেনা। সীমান্তে যখন উত্তেজনা বাড়ছে, তখন কূটনৈতিক স্তরে দুই দেশই কিন্তু সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যদিও এরই মাঝে সুর নরম করে চিন ‌। জানানো হয়, ভারত এবং চিন সীমান্তের পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে। খুব শীঘ্রই সমাধান সত্র বের করা হবে।

চিনের তরফে এই দাবি করেন বিদেশ মুখপাত্র। তিনি বলেন, সীমান্তের পরিস্থিতি এখন স্থিতিশীল এবং নিয়ন্ত্রণে। দুই দেশ আলোচনার মাধ্যমে নিজেদের সমস্যা সমাধান করবে। উল্লেখ্য, এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারত এবং চিনের মধ্যে মধ্যস্থতা করতে চেয়েছিলেন। সেই প্রস্তাব ভারত এবং চিন দুই রাষ্ট্রই ফিরিয়ে দিয়েছে। তবে, দুই দেশের কূটনৈতিক আলোচনা যে ফলপ্রসূ হচ্ছে তা কিছু অঞ্চল থেকে বাড়তি সেনা প্রত্যাহার থেকেই স্পষ্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here