মহানগর ওয়েবডেস্ক: গালোয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা শহিদ হয়েছিলেন। এই ঘটনার দুদিনের মাথায় তথ্যের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছিল ভারত। অন্যদিকে চিনের যেন তাদের নিহত সেনাদের প্রতি কোনও দায়বদ্ধতাই নেই। সূত্রের খবর, গালোয়ান সংঘর্ষে নিহত সেনাদের সৎকার বা শেষকৃত্য করতে অস্বীকার করে দিয়েছে বেজিং। যার মূল উদ্দেশ্য হল, নিজেদের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে কাউকে জানতে না দেওয়া। এমনটাই জানা যাচ্ছে মার্কিন গোয়েন্দা সূত্রে।

সংশ্লিষ্ট মার্কিন গোয়েন্দা সূত্র আরও জানিয়েছে, নিহত সেনাদের অন্ত্যেষ্টি সংক্রান্ত কোনও অনুষ্ঠান না করতে সরকারের তরফেও তাদের পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। গালোয়ানে সংঘর্ষের পর এক মাস সময় কেটে গেলেও চিন আজ অব্দি নিজেদের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিয়ে মুখ খোলেনি। তবে হতাহত যে হয়েছে সেটা স্বীকার করেছে। তবে ঘটনার পর ভারতের নানা সূত্রে বলা হচ্ছিল, কমপক্ষে ৪০ জন চিনা সেনার মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার খবর ছিল যে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৩৫ জন চিনা সেনার। তবে চিনের নিস্তব্ধতাই কার্যত এই দাবিতে সিলমোহর দিচ্ছে যে ভারতের থেকে তাদের ক্ষতি হয়েছে অনেক বেশি।

চিনের কমিউনিস্ট সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, মৃত সেনার পরিবারের কোনও সদস্য অন্তেষ্টি ক্রিয়া যেন না করেন। এমনকি যারা নিহত হয়েছেন তাদের কবর দিতেও অস্বীকার করে দিয়েছে চিন সরকার। মোদ্দা কথা, তারা কোনোভাবেই নিজেদের ক্ষতির পরিমাণ প্রকাশ্যে আনতে রাজি নয়। মার্কিন সূত্রের দাবি, বেজিং এখন বুঝতে পারছে তারা মস্ত বড় ভুল করে ফেলেছে। তাই আর ক্ষয়ক্ষতির সংখ্যা প্রকাশ্যে এনে ক্ষতে লবণ ছেটাতে চাইছে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here