news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সম্প্রতি নিম্নমানের রেপিড এন্টিবডি টেস্টিং কিট পাঠানোর জন্য চিনের দুই সংস্থার কাছ থেকে আমদানি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার। আর ভারতের এই অভিযোগের পরেই উদ্বেগ প্রকাশ করল চিন। তাদের দাবি, এই সব কিট যথেষ্ট উচ্চমানের এবং অন্যান্য অনেক দেশেই রপ্তানি করা হয়েছে।

চিনের দূতাবাসের মুখপাত্র জি রং মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানান, ‘চিন থেকে যেসব মেডিক্যাল কিট রপ্তানি করা হয়, তা যাতে ভালো কোয়ালিটির হয়, তা সবসময় খেয়াল রাখা হয়। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে কিছু ব্যক্তি বা সংস্থা এটাকে নিম্নমানের বলে অভিযোগ করছে।’

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর মেডিক্যাল রিসার্চের পক্ষ থেকে বলা হয়, চিনের গুয়াংঝু উন্ডফো বায়োটেক এবং ঝুহাই লিভজন ডায়াগনস্টিকের তৈরি রেপিড এন্টিবডি টেস্টিং কিটের মান খুব নিম্ন। সেই কারণে দেশ জুড়ে এই টেস্টিং বন্ধ করতে নির্দেশ দেয় আইসিএমআর।

জি রং জানান, ওই দুটি সংস্থার তৈরি টেস্টিং কিট চিনের ন্যাশনাল মেডিক্যাল প্রোডাক্টস এডমিনিস্ট্রেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছে। এই টেস্টিং কিট ভারত ছাড়াও ইউরোপ, এশিয়া ও লাতিন আমেরিকার একাধিক দেশে রপ্তানি করা হয়। ভারতের এই ধরণের অভিযোগ চিনের ভাবমূর্তি অন্যান্য দেশের সামনে ক্ষতি করছে।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই চিনা টেস্ট ক্রিকেট বাতিল করে দিয়েছে একাধিক রাজ্য সরকার। তাদের দাবি এই কিট একেবারেই ঠিকঠাক ফল দিচ্ছে না। বরং এটি ব্যবহার করে আরো বিভ্রান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। এখন কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকেই স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এই দুই সংস্থা তৈরি করা টেস্ট কিট ব্যবহার করা হবে না। সব রাজ্যের প্রায় সব হাসপাতালকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বিরোধী কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী ইতিমধ্যেই অভিযোগ তুলেছেন, কেউ কেউ এই টেস্ট কিটের দাম নিয়েও মুনাফা করতে চাইছে এই সংকট পূর্ণ পরিবেশে। তার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে হস্তক্ষেপ করার আর্জিও জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here