corona effect

Highlights

  • বেসরকারি সূত্রের দাবি, এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে
  • কিছু সংবাদমাধ্যমের দাবি, গোপনে করোনায় মৃত প্রায় ১০,০০০ ব্যক্তির দেহ পুড়িয়ে ফেলেছে চিন
  • সম্প্রতি দ্য ডেইলি মেইল ও দ্য এক্সপ্রেস ডট কমের পক্ষ থেকে এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়

মহানগর ওয়েবডেস্ক: চিনে মারাত্মক আকার ধারণ করেছে নোভেল করোনা ভাইরাস। চিন সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ১৪৮৩ জন ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৬৫ হাজার। যদিও কয়েকদিন আগেই এক চিনা বেসরকারি সংস্থা দাবি করেছিল আসলে চিনে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। তবে স্বাভাবিক ভাবেই সেই দাবি নস্যাৎ করেছিল চিন প্রশাসন। এরই মাঝে কিছু সংবাদমাধ্যমের দাবি, গোপনে করোনায় মৃত প্রায় ১০,০০০ ব্যক্তির দেহ পুড়িয়ে ফেলেছে চিন।

সম্প্রতি দ্য ডেইলি মেইল ও দ্য এক্সপ্রেস ডট কমের পক্ষ থেকে এই রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়। প্রমাণ হিসেবে পেশ করা হয় আবহাওয়া পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা উইন্ডি ডট কম দ্বারা প্রকাশিত কয়েকটি স্যাটেলাইট ইমেজ।

কী আছে ওই উপগ্রহ চিত্রে? উইন্ডি ডট কমের স্যাটেলাইট ইমেজে দেখা যাচ্ছে চিনের উহান প্রদেশের বাতাসে হঠাৎ করেই অস্বাভাবিক হারে বেড়ে গিয়েছে সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমাণ। সাধারণত মরদেহ পোড়ালে সালফার ডাই অক্সাইড নির্গত হয়। স্যাটেলাইট চিত্র অনুযায়ী উহানের বাতাসে সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমান প্রতি ঘন মিটারে ১৩৫০ মাইক্রোগ্রাম, যা বিপদসীমার থেকে অনেকটাই বেশি। এই উহান প্রদেশই করোনা ভাইরাসের আঁতুরঘর। সেখানে হঠাৎ করে বাতাসে সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বেড়ে যাওয়া নিয়ে সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

এছাড়া চিনের চংকিয়াং প্রদেশেও বাতাসে সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়েছে। সেখানে বাতাসে সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমান প্রতি ঘন মিটারে ৮০০ মাইক্রোগ্রাম। উহানের পর এই প্রদেশই করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত। ফলে সেখানেও সালফার ডাই অক্সাইডের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় সন্দেহ আরো ঘনীভূত হয়েছে।

বিভিন্ন মহলের দাবি, চিন আসলে যতটা বলছে, তার থেকে কয়েকগুণ বেশি মানুষ করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন। স্রেফ আন্তর্জাতিক মহলে নিজেদের মুখরক্ষার জন্য আসল তথ্য প্রকাশ করছে না চিন। আর সেই কারণেই চুপিসারে ওই দুই প্রদেশে প্রায় ১০ হাজার মৃতদেহ রাতারাতি পুড়িয়ে ফেলেছে চিনা প্রশাসন। যদিও এই নিয়ে চিন কোনোরকম মুখ খোলেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here