ডেস্ক: দুর্নীতি ও প্রতারণার অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকেই বেপাত্তা রাজ্যের প্রাক্তন আইপিএস ভারতী ঘোষ। একটা সময়ে সংবাদ শিরোনামের মধ্যমণি ভারতীকে দেখা গিয়েছে শুধু অডিও ও ভিডিও বার্তায়। তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতি ও প্রতারণার তদন্তে নেমে সিআইডি ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করেছে একের পর এক ভারতী ঘনিষ্ঠকে। চলতি সপ্তাহেই এবার বিতর্কিত প্রাক্তন এই আইপিএসের বিরুদ্ধে ঘাটাল আদালতে চার্জশিট পেশ করতে চলেছে সিআইডি।

সিআইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, চলতি সপ্তাহেই ভারতই ঘোষ তাঁর দেহরক্ষী ও ভারতই ঘনিষ্ঠ ৮ জনের বিরুদ্ধে আদালাতে চার্জশিট পেশ করতে চলেছে সিআইডি। উল্লেখ্য, ভারতীর বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করেছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ী। ওই ব্যবসায়ীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তভার হাতে নেয় সিআইডি। তদন্তে কলকাতা ও জেলার একাধিক জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে প্রচুর নগদ টাকা, সোনা, জমির কাগজপত্র সহ কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি উদ্ধার করে তদন্তকারী দল। কিন্তু রাজ্য সহ দেশের একাধিক জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালানো হলেও গ্রেপ্তার করা যায়নি ভারতীকে একইসঙ্গে বেপাত্তা তাঁর দেহরক্ষীও। তবে ভারতী ঘনিষ্ঠ একাধিক ব্যক্তি ও পুলিশকর্মীকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। দীর্ঘ তদন্তের পর এবার তাঁদের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট পেশ করতে চলেছে সিআইডি।

তবে ভারতীর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের হলেও, নিজেকে প্রথম থেকে সম্পুর্ণ নির্দোষ বলে দাবি করে এসেছেন প্রাক্তন এই আইপিএস। একাধিকবার অডিও ও ভিডিও বার্তায় পুলিশ এবং তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছেন তিনি। অভিযোগ ছিল, একদা তাঁর ঘনিষ্ঠ পুলিশ অফিসারদের ভয় দেখিয়ে বিবৃতি দেওয়ানো হচ্ছে। তবে ভারতীর সমস্ত অভিযোগ খন্ডন করেছে সিআইডি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here