নিজস্ব প্রতিবেদক, সিউড়ি ও বারাসত: বুধবার বীরভূমের ইলামবাজারের নাচনসাহা গ্রামে বনধের সমর্থনে রাস্তায় নেমে পুলিশের হাতে আটক হয়েছিল বেশ কয়েকজন বিজেপির কর্মী-সমর্থক। রাতেই তারা পুলিশের কাছ থেকে ছাড়া পেয়ে যায়। অভিযোগ তার পরেই আটক হওয়া ওই বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা নাচনসাহা গ্রামের তৃণমূলের কার্যালয়ের উপর চড়াও হয় এবং ভাঙচুর চালায়। এমনকি চারজন তৃণমূল কর্মী সমর্থককে লাথি ও বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। তাদের মধ্যে তিনজন গুরুতর আহত অবস্থায় বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার ফলে এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়, মোতায়েন করা হয় বিশাল
পুলিশবাহিনী।

এরই পাশাপাশি বুধবার বিজেপির ডাকা বাংলা বনধের সময় উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সদর মহকুমার গুমায় বিজেপির রেল অবরোধ তুলতে গিয়ে আক্রান্ত হয় অশোকনগর থানার ওসি আশিষ দলুই। ওই ঘটনায় পুলিশ ৯জন বিজেপি কর্মীকে জামিন অযোগ্য ধারায় গ্রেফতার করে এদিন বারাসাত আদালতে হাজির করে। জানা গিয়েছে, অশোকনগর থানার গুমা এলাকায় অবরোধকারিদের সরাতে লাঠি চার্জ করতে হয় পুলিশকে। সেই সময় অশোকনগর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক আশিষ দলুই আক্রান্ত হন অবরোধকারিদের হাতে।
পরে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিল বাহিনী গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে নয়জন বিজেপি কর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ধৃতরা হল ইন্দ্র মিত্র, কুদ্দুত রায়, প্রভাত মদক, গৌতম পাল, কানু মন্ডল, রঘুনাথ সরকার, তপন মন্ডল, গৌরাঙ্গ পান্ডে এবং আশিষ মন্ডল। এদের বিরুদ্ধে ১৪৩, ১৮৬, ৩৩৩, ৩৫৩ আইপিসি ও ৯ এমপিও জামিন অযোগ্য ধারার মামলা রুজু করে বারাসাত আদালতে পাঠানো হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here