news bengali kolkata

নিজস্ব প্রতিবেদক, জলপাইগুড়ি: জলপাইগুড়ি শহরের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী কালু শাহের মাজারের মেলা। দুই দিন ব্যাপী এই মেলার জন্য অপেক্ষা করে থাকেন শহরবাসী। করোনা আতঙ্কে বন্ধ হল সেই মেলা। স্থানীয়দের বিক্ষোভ ও পথ অবরোধে বাধ্য হয়েই মেলা বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয় থানা থেকে।

স্থানীয় কালু শাহের মাজারে অন্যান্য দিনের মতো আয়োজন করা হয়েছিল মেলার। সমস্ত কিছু সাজানো হলেও শেষ মুহূর্তে মেলা বন্ধ হয়ে যায়। শহরের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের এই মাজারের মেলার জন্য অপেক্ষা করে থাকে শহরবাসী।

করোনা আতঙ্কে এইবারে সেই উন্মাদনা নেই। এক সঙ্গে জমায়েতে সরকারের পক্ষ থেকে না বলা হয়েছে। তার মাঝেই আয়োজন করা হয়েছিল মেলার। নোভেল করোনা আতঙ্কই শুধু নয়। চলছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। অভিযোগ, তারস্বরে বেজেছে মাইক। ফলে পরীক্ষার্থীরাও পড়েছে অসুবিধায়।

করোনা ঠেকাতে জমায়েত নিষিদ্ধ ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শেষ না হওয়ার আগেই জোরে মাইক বাজায় ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা। স্থানীয়দের বিক্ষোভের জেরে অবশেষে মেলা বন্ধ করতে বাধ্য হয় পুলিশ। মেলার প্রথমদিনেই বাসিন্দারা প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। বাসিন্দাদের প্রশ্ন যেখানে বড় জমায়েত নিষিদ্ধ করেছে সরকার সেখানে এতবড় মেলা কিভাবে হয়? মাইক বাজানো নিয়েও প্রশাসনের বিরুদ্ধেও নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ স্থানীয়দের।

মেলা বন্ধের দাবি জানিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা পথ অবরোধও করেন। খবর পেয়ে যায় কোতোয়ালি থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে শব শুনে মেলা বন্ধের নির্দেশ দেয়। স্থানীয়দের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই মেলার জন্য প্রতি বছর সবাই অপেক্ষা করে থাকে কিন্তু এই বছর করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জমায়েত নিষেধ। আবার উচ্চমাধ্যমিক শেষ হওয়ার আগেই জোরে মাইক বাজছে। তাই মেলা বন্ধের দাবিতে অবরোধ করা হয়েছিল। আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দুই দিন মাজারে যে যার মতো করে আসবেন। দোয়া করে যাবেন। জমায়েত করা হবে না। দোকান বসবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here