ডেস্ক: অসমে নাগরিকত্ব ইস্যুতে ফের বোমা ফাটালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন এনআরসির পক্ষ থেকে দ্বিতীয় খসড়া প্রকাশের পর দেখা যায় সেই তালিকায় বাদ পড়েছে ৪০ লক্ষ নাম। এরপর সর্বভারতীয় স্তরে হাঙ্গামা শুরু হয় বিষয়টি নিয়ে। সংসদের উপর এবং নীচের উভয় কক্ষে এই নিয়ে বিষয়টি নিয়ে হুলুস্থুল করেন বিরোধীরা। অসম মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনেয়াল অবশ্য দাবি করেন, যাদের নাম বাদ পড়েছে আগামী সময়ে ফের নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য দাবি রাখতে পারবেন তারা। এখন তাড়িয়ে দেওয়া হবে না তাদের।

সোমবারই দিল্লি উড়ে যাচ্ছেন মমতা। তার আগে অসমের নাগরিকত্ব পঞ্জিকরন ইস্যু নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন। সম্প্রতি দিল্লির সেন্ট স্টিফেন কলেজে মুখ্যমন্ত্রীর অনুষ্ঠান বাতিল করে দেওয়া হয়। সেই বিষয়টি নিয়ে মমতা বলেন, এতে তাঁর কিছুই করার নেই। সেই অনুষ্ঠান যারা বাতিল করেছেন ভগবান তাদের ভাল করুন। পাশাপাশি আজই দিল্লি সফরে গিয়ে জেঠমালানি, শত্রুঘ্ন সিনহা যশোবন্ত সিনহার সঙ্গে দেখা করবেন বলে জানান তিনি। একই সঙ্গে রাজধানী পৌঁছে একটি খ্রিস্টান ধর্মযাজকদের অনুষ্ঠানেও যোগ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন। এই অনুষ্ঠানে আগে কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব যোগ দেন নি।

একনজরে দেখে নিন সাংবাদিক সম্মেলনে এদিন কী বললেন মমতা…

  • আমি আদালতকে সম্মান করি, কিন্তু অসমে স্বচ্ছতা মেনে এই কাজ করা হয়নি।
  • ওরা রোহিঙ্গা নয়, দেশের নাগরিক। তাহলে কেন এভাবে খেদিয়ে দেওয়া হচ্ছে।
  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলব, ওদের বাঁচান। মানবতা ও আগুন নিয়ে খেলবেন না।
  • অসমে ৩ জন সাংসদ পাঠাব, প্রয়োজন হলে নিজে যাব।
  • বাঙালি খেদাও, বিহারী খেদাও চলছে।
  • যদি স্বচ্ছতা মেনে সব করা হয় তবে কেন এত আধাসেনা, কেন নিরাপত্তা, কেন বন্ধ ইন্টারনেট?
  • আধার, পাসপোর্ট, সমস্ত নথি থাকা সত্ত্বেও মানুষের নাম বাদ পড়েছে।
  • অসমবাসীর সঙ্গে আছি, অসমের বাঙালিদের সঙ্গে আছি।
  • এটা নির্বাচী গেমপ্ল্যান, ডিভাইড অ্যান্ড রুল চালাচ্ছে কেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here