ডেস্ক: দেশের মোট ৯১টি লোকসভা কেন্দ্রে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। ভোটগ্রহণ পর্ব শুরু হতেই অন্ধ্রপ্রদেশের বিভিন্ন জায়গায় ইভিএম নষ্ট বা ভাঙচুরের ঘটনা সামনে এসেছে। ইতিমধ্যেই প্রায় ৩৬২টি ইভিএম মেশিন খারাপ হওয়ার কথা স্বীকার করে নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এবার ফের একবার ভোটগ্রহণের দাবি তুলে কমিশনকে চিঠি লিখলেন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু।

নাইডুর দাবি, অন্ধ্রপ্রদেশের বিভিন্ন এলাকায় ইভিএম মেশিন খারাপ হওয়ার ফলে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত ঘটছে। তাই সেখানে আবারও একবার ভোটগ্রহণ শুরু করার দাবি তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে নির্বাচন কমিশন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, যে জায়গাগুলিতে ইভিএম মেশিনগুলি খারাপ হয়েছে সেখানে পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু করা হবে না। তবে সেসব জায়গাগুলিতে রাত ৯টা থেকে ১০টা অবধি ভোট হবে।

 

অন্যদিকে, ওয়াইআরসিপি কর্মীদের হাতে আক্রান্ত হলেন অন্ধ্রপ্রদেশের স্পিকার কোদেলা শিবা প্রসাদ। জানা গিয়েছে গুন্টুরে স্পিকারের ওপর হামলা চালানো হয়, এমনকি তাঁর জামাও ছিড়ে দেন YSRCP কর্মীরা। স্পিকারকে রক্ষা করতে তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরা এগিয়ে এলে তাঁদের ওপর পাথর ছোড়া হয়। এই হামলায় স্পিকার এবং তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরা আহত হয়েছেন। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশকে ঘটনাস্থলে ডাকা হয়। পাশাপাশি অনন্তপুরায় একজন টিডিপি নেতা জখম হয়েছে। এছাড়াও টিডিপি নেতা এস ভাস্কর সংঘর্ষের জেরে মারা গিয়েছেন। টিডিপির দাবি, এই ঘটনার পিছনে ওয়াইআরসিপি কর্মীরা রয়েছেন। অন্যদিকে বন্দরাপল্লিতে টিডিপি এবং ওয়াইআরসিপি কর্মীরা নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here