kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা আবহের মধ্যেই শহরে থাবা বসিয়েছে ডেঙ্গি। ইতিমধ্যেই কলকাতায় ডেঙ্গির বলি হয়েছে একাধিক মানুষ। যদিও আগের বছরের তুলনায় এ বছর ডেঙ্গি সংক্রমণ অনেকটা কম বলে দাবি করেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য অতীন ঘোষ। এই অবস্থা আয়ত্তে রাখতে কলকাতা পুরসভার তরফে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

একদিকে যখন বেপরোয়াভাবে প্রাণ কাড়ছে অতিমারী, ঠিক সেই সময় আরেকদিকে সক্রিয় হওয়ার চেষ্টায় রয়েছে আর এক মারন ভাইরাস ডেঙ্গি। কোথায় কোথায় এর সক্রিয়তা জানতে ইতিমধ্যেই একটি সার্ভে চালায় কলকাতা পুরসভা। সেই সার্ভে অনুযায়ী কলকাতার চারটি ওয়ার্ডকে চিহ্নিত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৭, ৮, ৯, ১০ এই চারটি ওয়ার্ডে তুলনামূলকভাবে ডেঙ্গির প্রকোপ বেশি দেখা গিয়েছে । এই সমস্ত ওয়ার্ড-এ কেন ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্ত, তা জানতে ও সমাধান বার করতে এবার ওই ওয়ার্ডগুলো কো-অর্ডিনেটরদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন কলকাতা পুরসভার হেলথ অফিসাররা। পরবর্তীকালে ঐ সমস্ত এলাকা নিজে সশরীরে গিয়ে পরিদর্শন করবেন বলেও জানান পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বে থাকা, প্রশাসক মন্ডলীর অন্যতম সদস্য অতীন ঘোষ।

করোনার সাথেই ডেঙ্গি সংক্রমণ রোখা বর্তমানে রাজ্য সরকারের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এদিকে সম্প্রতি একটি রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, করোনার মতই ডেঙ্গির বাড়বাড়ন্তও সবচেয়ে বেশি উত্তর ২৪ পরগনায় যা দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সমস্যার সমাধানে, সমস্ত পুরসভাগুলিকে ডেঙ্গিপ্রবণ এলাকাগুলির তালিকা প্রকাশ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কলকাতায় প্রকাশিত সেই তালিকাতেই নির্দিষ্ট চারটি ওয়ার্ডকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, পরিকল্পনা সত্ত্বেও শহরে ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে প্রতিবছরই হিমশিম খাচ্ছে কলকাতা পুরসভা। ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুও হচ্ছে। গতবছর শহরে ৩ হাজারের বেশি মানুষ ডেঙ্গিতে আক্রান্ত হয়েছেন। সংক্রামিত ব্যক্তিদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ১০ জনেরও বেশি রোগীর। এর জন্য পুরসভা বারবারই মানুষের অসচেতনতা ও ভুল ডেঙ্গি চিকিৎসার দিকে আঙুল তুলেছে। যদিও বিরোধী কাউন্সিলারদের অভিযোগ বিভাগীয় সমন্বয়ের অভাবের দিকে। অনেক বিশেষজ্ঞ প্রশ্ন তুলেছেন পুরসভার মশা দমনের পদ্ধতি নিয়েও।

তবে চলতি বছরে চিত্রটা একদমই আলাদা। বছরের শুরু থেকেই করোনা আতঙ্কে জেরবার গোটা বিশ্ব। মহামারীর বিরুদ্ধে লড়তে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। তবে এই অবস্থাতে করোনার মোকাবিলা করতে গিয়ে ডেঙ্গির মত আর এক মারণ রোগকে যেন অবহেলা না করা হয়, এই বার্তা পৌঁছে দিতেই ইতিমধ্যেই বিভিন্ন উপায় প্রচার শুরু করেছে কলকাতা পুরসভা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here