মহানগর ওয়েবডেস্ক: গত শনিবার হঠাৎ করে জোফ্রা আর্চারের বল প্রায় ৯০ মাইল বেগে এসে লাগে স্টিভ স্মিথের কাঁধে। সঙ্গে সঙ্গেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিলেন তিনি। ফিরে এসেছিল পাঁচ বছর আগের ফিল হিউজের স্মৃতি। এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার অজি ক্রিকেটারদের হেলমেটে নেকগার্ড পরা বাধ্যতামূলক করতে চলেছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সোমবার এমনটাই ঘোষণা করেছে দলের স্পোর্টস মেডিসিন চিফ।

২০১৪ সালে শেফিল্ড শিল্ডের ম্যাচে আচমকা এক বাউন্সারে মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন ফিল হিউজ। সেই আঘাতের জেরে মৃত্যু হয়েছিল তাঁর। এই ঘটনার পর থেকেই ঘরোয়া ক্রিকেটে কনকাশন সাবস্টিটিউশন নিয়ম চালু করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। সম্প্রতি অ্যাসেজ থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও এই নিয়ম চালু হয়। আহত স্মিথের বদলে প্রথমবার বদলি হিসেবে নামেন মার্নাস লাবুশেন।

প্রসঙ্গত, ফিল হিউজের মৃত্যুর পরও হেলমেটে নেকগার্ড (পোশাকি নাম স্টেমগার্ড) ব্যবহারের নিয়ম চালু করার হিড়িক উঠেছিল। কিন্তু তা আবশ্যক ছিল না। ফলে কোনও ব্যাটসম্যান চাইলেই নেকগার্ড ছাড়া হেলমেট ব্যবহার করতে পারতেন। স্মিথও এই দলেই পড়েন। নেকগার্ড ব্যবহার করলে তাঁর অস্বস্তি হয়, এই কারণ দেখিয়েই সাধারণ হেলমেট এতদিন ব্যবহার করতেন তিনি। আর তাঁর এই ভুলেই মাশুলই তাঁকে শনিবার থেকে দিতে হচ্ছে।

এই ঘটনার পর আর কোনও ঝুঁকি নিতে রাজি নয় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। এবার থেকে তাই হেলমেটে নেকগার্ড ব্যবহার বাধ্যতামূলক করছে অজি ক্রিকেট বোর্ড। দলের স্পোর্টস মেডিসিন চিফ অ্যালেক্স কৌন্টরিস জানিয়েছেন, আইসিসি, ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড ও হেলমেট প্রস্তুতকারক সংস্থা এই নিয়ে একটি রিভিউ কমিটি গঠন করেছে। তারপরেই এটি বাধ্যতামূলক হয়ে যাবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here