news international

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নিজামুদ্দিনে তাবলিগ ই জামাতের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যাওয়ার কথা গোপন রাখার অভিযোগে পুলিশে মামলা রুজু করা হল দিল্লির এক প্রাক্তন কংগ্রেস কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে। আর সবচেয়ে বড় ব্যাপার, বর্তমানে ওই কংগ্রেস নেতা, তাঁর স্ত্রী (নিজেও কাউন্সিলর) এবং তাদের কন্যা, তিনজনেই করোনায় আক্রান্ত।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই নেতার গাফিলতির কারণে শুধু তার পরিবারই আক্রান্ত নয়, তার গ্রাম দিল্লির দক্ষিণ পশ্চিমে দিনপুর পুরোপুরি সিল করে দেওয়া হয়েছে। ফলে গোটা গ্রামের বাসিন্দারা এখন ঘরের বাইরে বেরোতে পারছেন না।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, ওই কাউন্সিলর ও তার পরিবারকে আম্বেদকর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ যখন প্রথমবার নিজামুদ্দিনে যোগদানকারী খোঁজ শুরু করে তখন ওই নেতা নিজের যোগদানের কথা বেমালুম চেপে যান। সেই সময় তার কোনও উপসর্গও ছিল না। কিন্তু সময়ের সঙ্গে উপসর্গ দেখা দেয়। আর তাতেই সন্দেহ হয় পুলিশের। তদন্তে দেখা যায় ওই নেতা নিজামুদ্দিনে গিয়েছিলেন আর সেখান থেকেই তার দেহে করোনা সংক্রামিত হয়।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই ওই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের অনেকেই করোনায় আক্রান্ত। মৃত্যু হয়েছে বেশ কয়েকজনের। কিন্তু প্রশাসনের আশঙ্কা ওই জমায়েতের ফলে প্রায় ৯০০০ জন করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন! স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে খবর ওই জমায়েতে প্রায় ৭,৬০০ জন ভারতীয় ও ১৬০০ বিদেশি নাগরিক অংশ নিয়েছিলেন। উভয় মিলে সংখ্যাটা দাঁড়ায় প্রায় ৯০০০। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা ওই ৯০০০ জনের করোনায় সংক্রামিত হওয়ার সম্ভাবনা তো রয়েছেই। কিন্তু আরও ভয়াবহ হলো তাদের মধ্যে যারা বাড়ি ফিরছিলেন, তারা আরো অনেক লোককে সংক্রামিত করতে পারেন। আর সেই কারণেই ওই সব ব্যক্তিদের খোঁজ চালাচ্ছে প্রতিটি রাজ্য প্রশাসন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here