kolkata bengali desk

মহানগর ওয়েবডেস্ক: খাতায় কলমে তিনি কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তি নন। কিন্তু দেশের রাজনীতির সঙ্গে তার সম্পর্ক বেশ দৃঢ়। রাজনৈতিক নানা বিষয়ে মাঝে মধ্যেই মুখ ফস্কে খবরের শিরোনামে আসেন যোগগুরু বাবা রামদেব। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না তবে এবার কংগ্রেস বিজেপি রাজনৈতিক আগুনে কার্যত ঘি ঢেলে বসলেন যোগগুরু। তাঁর দাবি, কংগ্রেসের দুই শীর্ষ নেতৃত্ব সনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধী মনে প্রাণে চাইতেন বিজেপির দুই শীর্ষ নেতা তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মৃত্যু হোক।

বুধবার পতঞ্জলির এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে দেশের ভিভিআইপি গান্ধী পরিবারকে কার্যত তুলোধনা করার পাশাপাশি, তাঁদের বিস্ফোরক অভিযোগ তোলেন রামদেব। তাঁর কথায়, ‘দেশের যখন ইউপিএ শাসন চলছে সেই সময়ে এই কংগ্রেসের এই দুই শীর্ষ নেতৃত্ব কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধী ও তাঁর পুত্র রাহুল গান্ধী চাইতেন জেলবন্দি হয়ে যেন মৃত্যু হয় অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদীর।’ রামদেবের এহেন মন্তব্যের পর রীতিমতো চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তবে শুধু কংগ্রেসের দুর্নামই নয়, এই মঞ্চে মোদী-শাহের গালভরা প্রশংসাও করতে ছাড়েননি যোগগুরু। তিনি আরও বলেন, এই সরকার দেশের দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত হাতে লড়াইয়ে নেমেছে।

এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে আইএনএক্স দুর্নীতি মামলায় জেলবন্দি হওয়া পি চিদম্বরমের প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। বলেন, যে পি চিদম্বরম অমিত শাহকে জেলে পাঠিয়েছিলেন। তাঁর সেই স্বপ্ন ঘুরে তাঁকেই আক্রমণ করবে। এবং আইনের পথ ধরে বিপাকে পড়বেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘দেশে থেকে আইনভঙ্গকারীদের জেনে রাখতে হবে যে আগামী দিনে তাঁদের চিদম্বরমের মতোই অবস্থা হবে।’ আরও আক্রমণ শানিয়ে তিনি বলেন, চিদম্বরম ভেবেছিলেন তিনি অর্থমন্ত্রী ফলে নিজের মন্ত্রকের রাজা তিনি। যা খুশি তাই তিনি করতে পারেন, আইন তাঁর হাতের মুঠোয়। কিন্তু সেটা যে কত বড় ভুল ভাবনা ছিল তা এখন প্রমাণিত।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here