ডেস্ক: কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল বিজেপির পক্ষে গেলেও এবার তাদের চালেই উল্টে যেতে পারে সরকার। এই মুহূর্তে কংগ্রেস এগিয়ে ৭৩ টি আসনে, অন্যদিকে দেবগৌড়ার দল জেডিএস ৪১টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার নিরিখে বিজেপি আপাতত একটু হলেও পিছিয়ে। ম্যাজিক ফিগার ১১২টি আসন থেকে পিছিয়ে ১০৬টি আসনে এগিয়ে রয়েছে। কিন্তু এই মুহূর্তে চমকপ্রদ তথ্য উঠে এসেছে যে কংগ্রেস জেডিএসকে সমর্থন করতে রাজি হয়ে গিয়েছে।

এখানেই শেষ নয়, কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এও জানানো হয়েছে যে জোট হলে দেবগৌড়ার ছেলে কুমারস্বামীকে মুখ্যমন্ত্রীর আসন ছেড়ে দেবে রাহুল গান্ধির দল। যদিও জেডিএসের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে বিস্তারিত কিছুই জানানো হয়নি।

কংগ্রেস ও জেডিএসের জোট হলে তাদের জয়ী আসন সংখ্যা যোগ করলে যদি ১১২-র উপর চলে যায় সে ক্ষেত্রে সরকার গঠন করতে কোনও সমস্যা হবে না কংগ্রেসের। যদিও এখনও পর্যন্ত নির্বাচনের ফলাফল পুরোটা সামনে আসেনি। কিন্তু দেশজুড়ে একের পর এক যেভাবে কংগ্রেসের নৌকা ডুবতে বসেছে, তা উদ্ধার করতে এখন তাদের একমাত্র ভরসা হতে পারে জেডিএস।

অন্যদিকে, দিল্লিতে শাসকদল হওয়ার সুবাদে বিজেপির আর্থিক ক্ষমতাকেও অগ্রাহ্য করে দেওয়া যাচ্ছে না। ভারতীয় রাজনীতিতে ক্ষমতায় আসতে জয়ী প্রার্থীদের ক্রয় করে তাদের সমর্থন নেওয়ার রীতি চলে এসেছে বহুদিন ধরেই। মেঘালয় ও গোয়াতেও দেখা গিয়েছিল কম আসন পেয়েও কীভাবে নির্দল ও বিরোধীদের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করে বিজেপি। এবার বিজেপির এই বুমেরাংই বিজেপির দিকে যাবে কিনা তার জন্য অবশ্যই অপেক্ষা করতে হবে জেডিএসের মতের। মুখ্যমন্ত্রীর আসন পাওয়ার ‘অফার’ পেয়ে কুমারস্বামী রাজি হলেও তাঁর দল এই বিষয়ে কী মতামত দেয় সেটাও তাঁকে দেখতে হবে। ফলে নির্বাচনের সম্পূর্ণ ফলাফল না আসা পর্যন্ত পুরোটাই ঝুলে রয়েছে দেবগৌড়ার ছেলে কুমারস্বামীর উপর। তিনি কী সিদ্ধান্ত নেন সেদিকেই তাকিয়ে সর্বভারতীয় রাজনৈতিক মহল।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here