kolkata bengali news

ডেস্ক: নির্বাচনী প্রচারে পুরোদমে তৈরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন মেরাঠে জনসভা করেন। সেখানে তিনি একাধারে যেমন বিরোধীদের তোপ দাগেন, অন্যদিকে গতকাল মহাকাশ সাফল্যের কথাও তুলে ধরেন। মেরাঠের মোদীর সভা শেষ হতে না হতেই তাঁকে একহাত নিল কংগ্রেস। দলের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালার বক্তব্য, নরেন্দ্র মোদী হলেন একটি ফ্লপ সিনেমার ফ্লপ অভিনেতা!

মেরাঠের সভায় মোদীর ভাষণের প্রেক্ষিতে রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, আজ সভায় যা হয়েছে তা নাটক ছাড়া আর কিছুই নয়। কৃষকদের নিয়ে নাটক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি স্লোগান তোলেন, ‘নহি কুছ কহেনে কো ইসবার, চালতা কারো মোদী সারকার’। সুরজেওয়ালা আরও বলেন, এটা খুবই লজ্জার বিষয় যে, গরীবদের জন্য কংগ্রেসের যে ‘ন্যায়’ প্রকল্প তা নিয়ে ভিন্ন সুর গাইছেন মোদী। দরিদ্রদের উন্নয়নের জন্য যে প্রকল্প তাকে ব্যঙ্গ করে প্রধানমন্ত্রী দেশের গরীব মানুষদের অপমান করছেন। এর আগে নোট বাতিল করে তিনি দেশের গরীব মানুষদের নিয়ে ছেলেখেলা করেছেন, এবারও তাই করলেন। তাঁর ক্ষমা চাওয়া উচিৎ বলে দাবি করছে কংগ্রেস।

 

আজ মেরাঠের জনসভায় নরেন্দ্র মোদী কংগ্রেসের ন্যায় প্রকল্পকে খোঁচা দিয়ে বলেন, যে সরকার গরীবদের জন্য ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টই খুলতে ব্যর্থ, তারা নাকি গরীবদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠাবে বলে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। এই বিষয় নিয়েই কংগ্রেসের তরফে বলা হয়েছে, যদি প্রধানমন্ত্রী ধনী ব্যক্তিদের টাকা দিতে পারেন, তবে কংগ্রেস গরীবদের টাকা দেবে। ন্যায় প্রকল্প দিয়ে তারা দেশের সকল গরীব মানুষদের পাশে থাকবে এবং তাদের সাহায্য করবে।

উল্লেখ্য, কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সুর তুলে মোদী মেরাঠের সভায় আরও বলেন, মহাভেজাল জোটের আমলে যেখানে কোনও মহিলাই সুরক্ষিত নয় সেখানে একটি দেশ কীভাবে সুরক্ষিত হবে? আগে ভারতে জঙ্গিদের প্রশ্রয় দেওয়া হত কিন্তু আমাদের সরকার তাঁদের যোগ্য জবাব দেয়। তাঁরা মানুষের বিশ্বাসের সঙ্গে খেলা করেছে। এছাড়া তাঁর আরও বক্তব্য, ইভিএম বোতাম টেপার আগে একবার বিকাশের কথা ভেবে নেবেন সকলে। এই চৌকিদারকে যারা চ্যালেঞ্জ করেছে তাঁরা আজ সকলেই কাঁদছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here