ডেস্ক: উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর কাছ থেকে খালি হাতে ফিরে এবার প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। এমন ঘটনা স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে নজিরবিহীন যখন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিকে অপসারিত করতে সুপ্রিম কোর্টেরই দ্বারস্থ হল বিরোধীরা।

প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রকে অপসারিত করার আবেদন আজ রাজ্যসভার স্পিকার তথা উপরাষ্ট্রপতি নাইডু খারিজ করে দেওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কংগ্রেসের তরফে। সাংবাদিক সম্মেলন করে কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল এদিন জানান, তাদের ইমপিচমেন্টের আবেদন খারিজ করার উপরাষ্ট্রপতির এই সিদ্ধান্ত ‘বেআইনি’ এবং হঠকারী। প্রাক্তন আইনমন্ত্রী এদিন বলেন, ‘উপরাষ্ট্রপতির এই নির্দেশ নজিরবিহীন, বেআইনি, ভুল এবং অসাংবিধানিক।’ এই সিদ্ধান্ত বেআইনি কেন সেই ব্যখ্যা দিয়ে সিব্বল যোগ করেন, ‘তদন্তের পরই ইমপিচমেন্ট পাশ করা সম্ভব তা উপরাষ্ট্রপতি করেইছিলেন। এরপর আবেদন খারিজ করার সিদ্ধান্ত বেআইনি।’

উল্লেখ্য, বিচারপতি লোয়ার মৃত্যু মামলায় আদালতের রায়ে নিরাশ হওয়ার পরই প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রর বিরুদ্ধে ‘ইমপিচমেন্ট’ প্রস্তাব নিয়ে আসে বিরোধীরা। কংগ্রেস ছাড়াও এই প্রস্তাবকে সমর্থন জানিয়েছিল বাকি বিরোধী দলগুলি। যদিও তৃণমূল এবং লালুর দল এই প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেনি। কিন্তু ৭১ জন সাংসদের সহমত সহ এই ইমপিচমেন্ট পেশ করা হয়েছিল। কিন্তু বিরোধীদের আশায় জল ঢেলে প্রধান বিচারপতিকে সরানোর এই আবেদন সোমবার খারিজ করে দেন ভেঙ্কাইয়া নাইডু।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here