Rahul Gandhi

ডেস্ক: ভোট আসছে। ভোটের সঙ্গে সঙ্গে বাজারে আসছে একঝাঁক নতুন প্রতিশ্রুতি, একের অপরের প্রতি কাদাছোঁড়াছুঁড়ি, শাসক-বিরোধী জ্বলজ্যান্ত এক একটা নাটক কোথাও জোট বন্ধন, একরাশ আত্মবিশ্বাস। তবে এই ভোট উৎসবে নামতে গেলে সবার প্রথমে যেটা প্রয়োজন তা হল বিপুল পরিমাণ অর্থ। আর সেখানেই পড়েছে খামতি। দীর্ঘ দিন ধরে কংগ্রেসের শূন্য ভাড়ার পূর্ণ করার দাবি জানিয়ে এসেছেন কংগ্রেসের সদস্যরা। এবার সেই তহবিলের খোঁজেই মাঠে নামতে চলেছেন কংগ্রেস সদস্যরা।

কিন্তু কিভাবে আসবে টাকা?
কংগ্রেসের তরফে জানা যাচ্ছে, লোকসভা ভোটের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ জোগাড় করতে ২ অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী থেকে লোক সম্পর্ক আন্দোলন শুরু করতে চলেছে কংগ্রেস। আর এই আন্দোলনে চাঁদার মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করবেন নেতৃত্ব থেকে কর্মীরা। ইতিমধ্যেই টুইটারে অর্থ সাহায্য চাওয়ার পাশাপাশি এই গণসংযোগ আন্দলনের মাধ্যমে ৪৫ দিনে ৫০০ কোটি টাকা তোলাই উদ্দেশ্য কংগ্রেসের। যুব কংগ্রেস, মহিলা কংগ্রেস সহ কংগ্রেসের অন্যান্য শাখাও এই অর্থ সংগ্রহে অংশ নেবে। পাশাপাশি আরও জানা গিয়েছে, গোটা দেশের ১০ লক্ষ বুথ থেকে বিশাল পরিমাণ টাকা চাঁদা তোলার লক্ষ্য নিয়েছেন কংগ্রেসের সদস্যরা।

এদিকে কংগ্রেসের দলীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গোটা দেশে লোকসভা ভোটের প্রচার করার জন্য ১০০০ কোটি টাকা অর্থের প্রয়োজন। সেই টাকা জোগাড় করার জন্য কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর কাছে ইতিমধ্যেই এক বিশাল রিপোর্ট পেশ করেছে দল। অবিলম্বে সেই টাকা জোগাড় করার জন্য দলকে নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, টাকার জোগাড় করতে তৈরি দলের সদস্যরাও। গণসংযোগ আন্দোলনে পাশাপাশি পার্টির প্রত্যেক সাংসদ ও বিধায়ক তাঁদের একমাসের বেতন কংগ্রেসের এই তহবিলে দেবেন বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here