kolkata bengali news

ডেস্ক: দেশের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের বিরুদ্ধে উঠেছে যৌন হেনস্থার অভিযোগ। শুধু তাই নয়, প্রধান বিচারপতিকে অপসারিত করার জঘন্য ষড়যন্ত্র চলছে বলে সম্প্রতি দাবি করেছেন আইনজীবী উৎসব বাইনস। ওই আইনজীবীর তরফে এদিন পেশ করা ষড়যন্ত্রের প্রমাণপত্রের হলফনামার পর, প্রথম দিনের শুনানিতে আদালতের তরফে জানিয়ে দেওয়া হল এর শেষ দেখে ছাড়ব।

এদিনের শুনানিতে নতুন করে জড়িয়েছে শীর্ষ আদালতের বরখাস্ত হওয়া দুই কর্মীর নাম। অনিল আম্বানির বিরুদ্ধে হওয়া একটি রায় বদলে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল যাদের বিরুদ্ধে। নিজের পেশ করা হলফনামায় উৎসবের দাবি, রঞ্জন গগৈয়ের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে জড়িত রয়েছেন ওই দুই কর্মীও। বুধবারের শুনানির পর, আগামী বৃহস্পতিবার ওই সংক্রান্ত তথ্যপ্রমাণ হলফনামার আকারে সকালের মধ্যে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ।

এদিন প্রথমদিনের শুনানির পর আদালতে তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ জানান, দেশের বিচার ব্যবস্থাকে কালিমালিপ্ত করার যে ঘৃণ্য চক্রান্ত চালানো হচ্ছে তার শেষ দেখে ছাড়ব। এঁরা যদি সক্রিয় হয়ে ওঠে তাহলে আমাদের সবার অস্তিত্ব বিপন্ন হয়ে যাবে।’ পাশাপাশি এটাও জানানো হয়, ‘বিচারপতির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ ও ষড়যন্ত্র দুই অভিযোগের তদন্ত চলবে।’ একইসঙ্গে আগামী ২৬ এপ্রিল প্রধানবিচারপতির বিরুদ্ধে অভিযোগকারী ওই মহিলাকে আদালতে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শীর্ষ আদালতের আইনজীবী উৎসব দাবি করেছেন প্রধান বিচারপতিকে ফাঁসাতে তাঁকে দেড় কোটি টাকার প্রস্তাব দেয় এক ব্যক্তি। তার দাবি অনুযায়ী, এই ষড়যন্ত্রে জড়িত রয়েছে আন্ডার ওয়ার্ল্ডের ডন দাউদ ইব্রাহিম থেকে জেট এয়ারওয়েজের প্রধান নরেশ গোয়েল। তার দাবির প্রেক্ষিতে এদিন শীর্ষ আদালতে তরফে যে তথ্য প্রমাণ চাওয়া হয়। সেই তথ্য প্রমাণ মুখবন্ধ খামে আদালতে পেশ করার পাশাপাশি সাংবাদিকদের সামনে উৎসব বলেন, ‘সমস্ত তথ্যপ্রমাণ আমি পেশ করেছি। আমার কাছে একটি সিসিটিভি ফুটেজ রয়েছে যা প্রমাণ করে এই ষড়যন্ত্রকে। যা আদালতে পেশ করেছি আমি।’ একইসঙ্গে তার আরও দাবি, এই কাণ্ডের মূল মাথা অত্যন্ত ক্ষমতাশালী। একইসঙ্গে, শীর্ষ আদালতের তরফে গোটা বিষয়ের তদন্তের জন্য এদিন তলব করা হয় সিবিআইয়ের ডিরেক্টর ঋষি কুমার শুক্লা, আইবি প্রধান রাজীব জৈন ও দিল্লি পুলিশ প্রধান অমূল্য পটনায়েককে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here