corona vaccine

মহানগর ডেস্ক: করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্নের শেষ নেই। একাধিক প্রশ্ন উঠছে। এখন সাধারণ মানুষের মনে মূলত একটাই প্রশ্ন, এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কতদিন থাকবে। এই বিষয়ে এইমস প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া জানান, করোনার ভ্যাকসিন ৮ থেকে ১০ মাস থাকবে। তবে কেউ যদি মনে করেন, করোনা মহামারী চলে গিয়েছে, তা হলে ভুল করছেন। অনেক ক্ষেত্রেই মানুষ মনে করছেন, করোনা চলে গিয়েছে। যার জেরে স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। এই কারণে দেশে করোনা সংক্রমণ নতুন করে মাথাচাড়া দিয়েছে বলেও এইমস প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া জানিয়েছেন।

তিনি মন্তব্য করেছেন, করোনা ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তাই মানুষ নির্ভয়ে করোনার ভ্যাকসিন নিতে পারেন। অন্যদিকে, দেশে করোনা পরিস্থিতি ক্রমেই ভয়ানক আকার ধারণ করেছে। তামিলনাড়ু, কর্ণাটক, কেরলে স্কুলগুলো ফের বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালে লকডাউন জারি করা হয়েছে। ইন্দোর, ভোপাল, সুরাত, রাজকোট, আহমেদাবাদ এবং ভাদোদরায় আবার নৈশ কারফিউ জারি করা হয়েছে। সব থেকে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে মহারাষ্ট্র। অন্যদিকে, মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি গুজরাট, পঞ্জাব, কেরল, কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দেশের অন্যান্য রাজ্যগুলোর তুলনায় সব থেকে বেশি।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় ৪৩,৮৪৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন। গত চার মাসে দৈনিক করোনায় আক্রান্তের এটাই সব থেকে বেশি। করোনার জেরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৯৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, দেশে মোট আক্রান্তের ৮০ শতাংশের বেশি মহারাষ্ট্র, পঞ্জাব, কর্ণাটক, ছত্তিশগড়, গুজরাট থেকে সংক্রমিত হয়েছে। দেশে মোট আক্রান্তের ৬০ শতাংশ শুধু মহারাষ্ট্র থেকেই আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here