international news

Highlights

  •  শীতল তাপমাত্রা এবং উচ্চ বায়ু আদ্রতা এই জীবাণুর জীবন বাড়িয়ে দেয়
  • কোনও সংক্রমিত জায়গায় টানা ৯ দিন সংক্রমক থাকতে পারে নোভেল করোনাভাইরাস
  • গবেষকের এই নয়া দাবিতে এখন শোরগোল গোটা বিশ্বজুড়েই

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গড়ে ৪-৫ দিন ‘বাঁচার’ কথা। কিন্তু কোনও সংক্রমিত জায়গায় টানা ৯ দিন সংক্রমক থাকতে পারে নোভেল করোনাভাইরাস। এমনই তথ্য দিলেন জার্মানির এক গবেষক। গন্টর ক্যাম্ফ নামের ওই গবেষক দাবি করেছেন, শীতল তাপমাত্রা এবং উচ্চ বায়ু আদ্রতা এই জীবাণুর জীবন বাড়িয়ে দেয়! তাঁর এই রিপোর্ট আরও আতঙ্ক বাড়িয়ে দিয়েছে।

গ্রেফওয়াল্ড বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের স্বাস্থ্য এবং পরিবেশগত মেডিসিন ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক তথা গবেষকের এই নয়া দাবিতে এখন শোরগোল গোটা বিশ্বজুড়েই। মূলত ‘সার্স করোনাভাইরাস’ এবং ‘মের্স করোনাভাইরাস’ নিয়ে তিনি গবেষণা চালিয়েছেন। এই গবেষণায় তাঁর সঙ্গে ছিলেন রুহর-ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ইয়েক স্টেনমেন। তাদের কথায়, ভিন্ন করোনাভাইরাস নিয়ে গবেষণা করে এই একই ফল পাওয়া গিয়েছে।

জানানো হচ্ছে, অন্যান্য ‘ড্রপ্লেট’ ভাইরাসের মতো এই ভাইরাস হাতের মাধ্যমে এবং হাত যেখানে রাখা হয়েছে, সেই জায়গায় হাত দিলে এই ভাইরাস দ্রুত ছড়াতে পারে। যেমন, দরজার হাতল, টেবিল, মোবাইল ফোন থেকে এই ভাইরাস ছড়ানোর মাত্রা বেশি বলেই দাবি করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, চিনে বুধবার এই ভাইরাসের কারণে মৃত্যু হয়েছে ২৪২ জনের। এর আগে একদিনে এত লোকের মৃত্যু হয়নি। সোমবার একদিনে সবচেয়ে বেশ ১০৩ জন মারা গিয়েছিলেন। বুধবারের পরে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ১৩১০ জন। এর পাশাপাশি এক নতুন পদ্ধতিতে এই রোগের নির্ণয় করা শুরু করেছে চিনা প্রশাসন। আর তাঁর জেরে আরও ১৪,৮৪০ জনের এই ভাইরাসে নতুন ভাবে আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলিছে। ফলে সবমিলিয়ে নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৪৮,২০৬ জন।

তবে এখনই এই করোনার হাত থেকে রেহাই মিলবে না বলে দাবি করেছেন অন্যান্য চিকিৎসকরা। তাদের আশঙ্কা এই মাসের শেষে আরও ভয়ানক অবস্থার সম্মুখীন হতে চলেছে চিন। এর পরেও একটাই আশার বাণী শোনাচ্ছেন তারা। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, করোনায় মৃতের সংখ্যা বাড়লেও মোট আক্রান্তের তুলনায় মৃত্যুর হার বেশ অনেকটাই কম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here