মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক খোঁজার নিরন্তন চেষ্টা জারি রয়েছে দেশ ও বিদেশে। ভারতের বেশ কিছু সংস্থাও গবেষণা চালাচ্ছে নিজেদের মতো। এরই মধ্যে জিলেড নামের একটি আমেরিকান ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি তাদের উৎপাদিত ওষুধ রেমডিসিভির দিয়ে করোনা চিকিৎসা হতে পারে বলে আশাপ্রকাশ করেছে। এই ওষুধ করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সেরে উঠতে সহায়তা করতে পারে। এ ব্যাপারে ‘সুপষ্ট প্রমাণ’ও পাওয়া গিয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে।

ওই গবেষণায় বলা হয়েছে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এতদিনে যে যে ওষুধ ব্যবহার করা হয়েছে তার মধ্যে রেমডিসিভির সবথেকে বেশি কার্যকর। করোনা রোগী তৃতীয় স্টেজে পৌঁছে যাওয়ার পরও এই ওষুধ প্রয়োগ করে পজিটিভ ফল পাওয়া গিয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফুচি বলেছেন, করোনাভাইরাসের পরীক্ষমূলক চিকিৎসায় বা আক্রান্তের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে রেমডিসিভির বিষয়ে আশাব্যঞ্জক ফল পাওয়া। রেমডিসিভির মূলত একটি সংক্রামক রোগ প্রতিরোধী ওষুধ। এটি ইবোলা ভাইরাসের চিকিৎসার জন্য তৈরি করা হয়েছিল।

ওই গবেষণায় বলা হয়েছে, রেমডিসিভির কোনও রোগীকে যত আগে আগে দেওয়া যায় ততই কার্যকর ঝবে। তারা বলছে, আগেভাগেই চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে এমন শতকরা ৬২ ভাগ রোগীকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া সম্ভব হয়েছে ইতিমধ্যেই। আর যেসব রোগীকে দেরিতে দেয়া হয়েছে তাদের শতকরা ৪৯ ভাগ হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়েছেন। তবে এই ওষুধের ব্যবহার নিয়ে এখনই সিদ্ধান্তে আসতে রাজি নন গবেষকরা। এই পরীক্ষানিরীক্ষা করে তবেই কোনও সিদ্ধান্তে আসা যাবে। রেমডিসিভিরের কার্যকারিতার বিষয়ে শতভাগ নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত কখনই এর ব্যবহারের অনুমতি পাওয়া যাবে না। তবে এই ওষুধের ব্যবহারে সুফল মেলায় কিছুটা আশার আলো অবশ্যই দেখতে পাওয়া গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here