news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কয়েক সপ্তাহ আগের কথা। তাবলিঘি জামাতের সদস্যরা তখন সবে নিজামুদ্দিন মারকাজে ধরা পড়েছেন। তারপরই লাফিয়ে লাফিয়ে দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। সেই ঘটনার পর বেশ কয়েক সপ্তাহ কেটে গেলেও তাবলিঘি জামাতের বেশ কিছু ‘বেপাত্তা’ সদস্য এখনও সরকার এবং প্রশাসনের মাথা ব্যথার কারণ হয়ে আছে।

ঘটনার পর থেকেই দেশজুড়ে রীতিমতো খড়ের গাদায় সূচ খোঁজার মতো করে খুঁজে বের করা হয়েছে জামাত সদস্যদের। সরকারের বারবার অনুরোধ সত্ত্বেও তারা বাইরে আসতে না চাওয়ায় প্রাথমিকভাবে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছিল, যদিও সময়ের সঙ্গে তা অনেকটাই কম হয়েছে। তবে গোয়েন্দা সূত্রে পাওয়া খবরে জানা যাচ্ছে, এখনও এমন কয়েকশো জামাতি রয়েছে যারা রাজধানীর ওই জমায়েতে উপস্থিত ছিল, কিন্তু এখনও পর্যন্ত সামনে আসছে না। তাদের মধ্যেও কোভিড ১৯-র ভাইরাস থাকতে পারে যা সংক্রমণের সম্ভাবনা অনেকটাই বাড়িয়ে দেবে। ফলে পুরো বিষয়টি নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছে প্রশাসন।

বিশেষ করে, রাজ্যে রাজ্যে যেভাবে সংক্রমণ ক্রমশ বাড়ছে তার পিছনে লুকিয়ে থাকা জামাতিদের তত্ত্বও একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছে না ওয়াকিবহাল মহল। গোপন সূত্রের খবর, মহারাষ্ট্রে বেপাত্তা রয়েছেন প্রায় ৪০-৫০ জন জামাতি। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশ, বিহার, তামিলনাড়ু এবং কর্ণাটকের মতো রাজ্যে ২০-৩০ জন জামাতি লুকিয়ে। পরিসংখ্যান বলছে, লুকিয়ে থাকা জামাতিদের মোট সংখ্যা প্রায় ২০০-র কাছাকাছি হতে পারে। এবং এদের থেকে কমপক্ষে ১৫০০ মানুষের শরীরে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here