kolkata bengali news, district news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা:রাজ্য বিজেপির সদর দফতরে বন্ধ করে দেওয়া হল নেতাদের আনাগোনা। উলটো দিকের গলিতেই থাবা বসিয়েছে করোনা ভাইরাস। তারপর থেকে সংক্রমণের আতঙ্ক বিজেপি রাজ্য সদরদফতরে। এই পরিস্থিতিতে করোনা সতর্কতায় সদর দপ্তর মুরলিধর সেন লেনে নেতাকর্মীদের আসা বন্ধ করে দেওয়া হল।

এদিকে মঙ্গলবার রাজ্য বিজেপির পঞ্চম ভারচুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। দিল্লির দলীয় কার্যালয়ের মঞ্চ থেকে সভায় ভাষণ দেওয়ার কথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়ালের। রাজ্য বিজেপির অন্যতম সহসভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ভারচুয়াল সভা যেহেতু জরুরি কর্মসূচি, তাই রাজ্য বিজেপি অফিসে এখানকার সভামঞ্চ করা হবে। তবে রাজ্য বিজেপি দফতরে আপাতত আর কোনও কর্মসূচি হবে না।

মুরলিধর সেন লেনে বিজেপির সদর দপ্তরে প্রতিদিনই বহু নেতানেত্রী, সদস্য-সমর্থ আসেন। এদিকে বিজেপির সদর দপ্তরের উলটো দিকের গলি দিয়ে ঢুকেই একটি বাড়িতে হানা দিয়েছে করোনা ভাইরাস। জানা গিয়েছে, ওই বাড়িটির তিনতলাতেই ২০১৬ সালে ছিল বিজেপির কল সেন্টার। ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্যদফতরে কাছে ওই বাড়িটি খবর জানানো হয়েছে। ওই বাড়ির মোট সাতজন সদস্যকে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তবে তাঁদের মধ্যে একজনেরই নমুনা পরীক্ষায় মিলেছে করোনার প্রমাণ। বাকিরা রয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে। তাই সংক্রমণের আশঙ্কায় বাড়িটি আপাতত সিল করে দিয়েছে পুলিশ।

সোমবার থেকেই ৬ নম্বর মুরলিধর সেন লেনে বিজেপির সদর দপ্তরের মূল দরজা বন্ধ রাখা হয়েছে। খুব জরুরি কাজ ছাড়া কোনও শীর্ষ নেতাও এখন আর দলীয় কার্যালয়মুখী হবেন না। তাই আপাতত বিজেপি সদর দপ্তরে তাঁর আসা সম্ভব নয় বলেই জানিয়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here