news international

মহানগর ওয়েবডেস্ক: চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রাশিয়া বহু আগেই দাবি করেছে যে তারা করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন বের করে দিয়েছে। এই ঘোষণার পর থেকেই ভ্যাকসিন আনতে আরো উদ্যোগ লাগিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। কিছুদিন আগে রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা করেছিলেন, নভেম্বর মাসেই আসছে আমেরিকার তৈরি করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন। কিন্তু এদিন তিনি জানালেন, হয়তো ভ্যাকসিন আসার জন্য নভেম্বর মাসের অপেক্ষা করতে হবে না। আর এক মাসের মধ্যেই অর্থাৎ অক্টোবরেই তৈরি হয়ে যাবে আমেরিকার করোনা ভাইরাস টিকা। ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই দাবিতে শোরগোল শুরু হয়েছে।

এ বছরের শেষেই আমেরিকার রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। তার আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প যে এই ভ্যাকসিন বিষয়টিকে ভোটের কাজে লাগাচ্ছেন তা অনুমান করছেন অনেকে। সেই প্রেক্ষিতেই তিনি বারবার দাবি করছেন খুব শীঘ্রই ভ্যাকসিন আনতে চলেছে আমেরিকা। নভেম্বরে ভ্যাকসিন আনার কথা ঘোষণা করার পরে তিনি আবার এ দিন ঘোষণা করলেন, তারও আগে চলে আসবে আমেরিকার করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন। এক সংবাদ মাধ্যমকে সাক্ষাৎকার দিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিন বা খুব বেশি হলে চার সপ্তাহের মধ্যেই আসছে করোনাভাইরাস টিকা।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন, নভেম্বরের শুরুতে বাজারে আসতে চলেছে আমেরিকার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন। কিভাবে সেই ভ্যাকসিন গুলি রাজ্য সরকার জনগণের মধ্যে বন্টন করবেন সে বিষয়ে চূড়ান্ত পরিকল্পনা সেরে ফেলতে বলা হয়েছে। মার্কিন সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি) ঠিক করে নিয়েছে আগে কাদের টিকা দেওয়া হবে এবং কি পদ্ধতিতে টিকার বিতরণ করা হবে রাজ্যগুলির কাছে। পাশাপাশি টিকার জন্য রাজ্য সরকার গুলিকে আবেদন করতে বলা হয়েছে শীঘ্রই। ভিত্তিতেই আমেরিকার রাজ্যগুলিকে আলাদা আলাদাভাবে বিতরণ করা হবে পরিমাণমতো ভ্যাকসিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here