kolkata bengali news

ডেস্ক: ১১ এপ্রিল প্রথম দফার ভোট গণনা শুরু। তার আগে প্রবলভাবে ভোটের প্রচার সারছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি। আর এই ক্ষেত্রে সকলকে টেক্কা দিতে একেবারে রূপোলি পর্দাকেও হাতিয়ার করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আসন্ন লোকসভার ঠিক ৬ দিন আগেই মুক্তি পাওয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বায়োপিক ‘পিএম নরেন্দ্র মোদী’র। সেই নিয়েই তুমুল বিতর্ক শুরু দেশজুড়ে। ভোট ময়দানে প্রভাব ফেলতেই এই ছবি বানানো হয়েছে বলে দাবি করেছে বিরোধীরা। তাদের মত, এই ছবি বিজেপির প্রোপাগান্ডা ছাড়া কিছুই নয়। এই দাবি তুলেই এলাহাবাদ আদালতে মামলা করেন ভীম সেনার সভাপতি সানাউল্লা খান। আর্জি ছিল, ভোটের আগে এই ছবি মুক্তি স্থগিত হোক। সেই শুনানি এক সপ্তাহ পিছিয়ে দিল আদালত।

নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যেই ছবির প্রযোজকদের নোটিশ দিয়েছে, এই কথা বলেই বিচারপতি পিকেএস বাঘেল ও পঙ্কজ ভাটিয়ার বেঞ্চ ছবি স্থগিত করার আর্জি নিয়ে মামলার শুনানি পরের শুক্রবার অর্থাৎ ৫ তারিখ পর্যন্ত মুলতুবি করে দিয়েছেন। মূল মামলা ছিল, লোকসভা নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত ছবি মুক্তি স্থগিত থাক। কিন্তু সেই মামলার শুনানিই পিছিয়ে গেল।

 

উল্লেখ্য, পরের ৫ তারিখই প্রধানমন্ত্রীর বায়োপিক মুক্তি পাওয়ার কথা। এখন প্রশ্ন উঠছে, মামলার শুনানির ওইদিন হলে ছবি এমনিতেই মুক্তি পেয়ে যাবে। তবে মুক্তির পর আদৌ কি ছবি স্থগিত করা যাবে, প্রশ্ন উঠছে। পাশাপাশি, রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, ছবিকে আদৌ স্থগিত করা হবে না বলেই শুনানি পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, ছবির বিরুদ্ধে মামলা করে দাবি করা হয়, ভোটের আগে এই ছবি মুক্তি নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন করার সমান। অস্বচ্ছ ভোট করতেই এই ছবি মুক্তির চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here