নিজস্ব প্রতিবেদক, শিলিগুড়ি: চার বছর আগে এক যুবতীকে গণধর্ষণের অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের নির্দেশ দিলেন বিচারক। বৃহস্পতিবার শিলিগুড়ি এডিশনাল ডিস্ট্রিক্ট এন্ড সেশান জর্জ ফার্স্ট কোর্টের বিচারপতি দেবপ্রসাদ নাথের এজলাসে ওঠে ওই মামলায়। অপরাধী সঞ্জয় কারকেট্টা এবং দিপক ভগতের বিরুদ্ধে তখনই এই রায় ঘশনা করেন বিচারপতি।

জানা গিয়েছে, ২০১৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি রাতে শিলিগুড়ি সংলগ্ন খড়িবাড়ি ব্লকের কল্যানপুর গ্রামের এক যুবতীকে গণদধর্ষন করে এই দুই ব্যক্তি। যুবতী এলাকার একটি বিয়ের নিমন্ত্রন থেকে ফেরার সময় এই দুজন ঝোপের মধ্যে থেকে বেড়িয়ে এসে জোরজবরদস্তি যুবতীকে অপহরন করে। এরপর ডুমুরিয়া সেতুর নীচে নিয়ে গিয়ে গণ ধর্ষন করে তাকে। সেখান থেকে যুবতী কোনরকমভাবে পালাতে সক্ষম হয়। পরে ১৫ ফেব্রুয়ারি খড়িবাড়ি থানায় অভিযোগ দায়ের করে ওই যুবতী। অভিযোগের ভিত্তিতে সঞ্জয় ও দিপককে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর তাদের বিরুদ্ধে কাস্টডিয়াল ট্রায়াল শুরু হয়। ১১ জন সাক্ষী এবং ৩২ টি নথি দিয়ে এই দুজনের অপরাধ প্রমানিত হয়। শেষে বুধবার দুজনকে দোষি সাব্যস্ত করেন বিচারক এবং এদিন দুজনের সাজা ঘোষনা করা হয়। যাবজ্জীবন কারাদন্ডের পাশাপাশি এক লক্ষ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ছয় মাসের জেলের রায় দেন বিচারক। ঘটনায় সরকারি আইনজীবী প্রদীপকান্তি ঘোষ বলেন, ‘সমাজে যাতে এই ধরনের অপরাধ কোনভাবেই মাথাচাড়া না দিতে পারে সেজন্য এই দুনজের বিরুদ্ধে এই রায় দিয়েছেন বিচারক।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here