national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ইতিমধ্যেই রাশিয়া আবিষ্কার করে ফেলেছে বিশ্বের প্রথম করোনার ভ্যাকসিন। যদিও সেই ভ্যাকসিন নিয়ে তথ্য এতটাই কম যে কোনও দেশই তা নিয়ে খুব বেশি উৎসাহিত নয়। হু’র অনুমোদন প্রাপ্ত কোনও ভ্যাকসিন তৈরির জন্য তাবড় তাবড় বিজ্ঞানিরা উঠে পড়ে লেগেছেন। এরই মাঝে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ হর্ষ বর্ধন জানালেন, এই বছরের শেষের দিকেই মিলতে পারে ভারতের নিজস্ব করোনা ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট কোভ্যাক্সিন।

হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, ‘ভারতের নিজস্ব ভ্যাকসিন কতটা কার্যকর তা এই বছরের শেষের দিকেই ট্রায়াল শেষে জানা যাবে। অন্যদিকে, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনও ভারতে তৈরি হচ্ছে, ট্রায়াল চলছে। সঠিক সময়ে ভারতে যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে এই ভ্যাকসিন পাওয়া যায় সেই কারণেই এটা করা হচ্ছে।’

তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যেই আইসিএমআর ও ভারত বায়োটেকের মধ্যে একটি মঊ স্বাক্ষরিত হয়েছে। কোভ্যাক্সিন যদি সমস্ত ট্রায়ালে সফল হয়, তাহলে অল্পমূল্যে সাধারণ মানুষ যাতে তা পেতে পারেন তা সুনিশ্চিত করতেই এই মউ স্বাক্ষরিত হয়েছে।

অন্যদিকে আইসিএমআর জানিয়েছে, কেন্দ্রীয় সরকার যদি মনে করে করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের জরুরী অনুমোদন প্রয়োজন, তাহলে আইসিএমআর এই বিষয়টি বিবেচনা করে দেখবে। জানা গিয়েছে, সাধারণত কোন ভ্যাকসিনের চূড়ান্ত পর্যায়ের ট্রায়ালের শেষ হতে কমপক্ষে ৬-৯ মাস সময় লাগে। সেই সময়ে যদি না দেওয়া সম্ভব হয় তাহলে জরুরী অনুমোদনের বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। কেন্দ্রীয় সরকার যদি চায় তাহলে আইসিএমআর এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে রাজি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here