নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্যারাকপুর: ব্যারাকপুরে আমার লড়াই মাফিয়া রাজের বিরুদ্ধে, গণতন্ত্রকে রক্ষা করার লড়াই। সাধারণ মানুষের দাবিগুলিকে সংসদে নিয়ে গিয়ে সেই দাবি আদায় করতে হলে দেশের সংসদে বেশী সংখ্যায় বাম প্রার্থীদের জয়ী করে নিয়ে যেতে হবে। প্রার্থী হিসেবে ব্যারাকপুরে লোকসভা কেন্দ্রে নাম ঘোষণার পরই প্রচারে বেরিয়ে একথা বললেন সিপিএম প্রার্থী গার্গী চট্টোপাধ্যায়। এদিন তিনি আরও বলেন, শ্রমিকদের ন্যূনতম ১৮ হাজার টাকা বেতনের দাবি বা অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের ন্যূনতম ৬ হাজার টাকা পেনশন, সহ একাধিক দাবি নিয়ে গোটা দেশ জুড়ে আন্দোলনে নেমেছে বামেরা। তাই বামেদের মানুষ জিতিয়ে সংসদে নিয়ে যাবে। ২০১১ সালের পর থেকে এ রাজ্যের মানুষ ঠিকমত ভোট দিতে পারেনি, সেক্ষেত্রে গণতন্ত্র লুঠের অভিযোগও তোলেন বামপ্রার্থী গার্গী চট্টোপাধ্যায়।

এদিন গার্গীর আক্রমণে উঠে আসে ব্যারাকপুরে মাফিয়ারাজের প্রসঙ্গও৷ তিনি বলেন, ‘ব্যারাকপুরে মাফিয়ারাজ শেষ করতে মানুষ আজ ঐক্যবদ্ধ। এই লোকসভা কেন্দ্রের মানুষ বামেদের সমর্থন করতে প্রস্তুতি নিয়েছে। তারা এবার গণতন্ত্র রক্ষায় সবরকম বাঁধা অতিক্রম করে ভোট দিয়ে বামেদের জেতাবে।’

 

মঙ্গলবার বিকেলে দলীয় কর্মীদের সঙ্গে শ্যামনগর ফিডার রোড এলাকায় পায়ে হেঁটে প্রচার করেন গার্গী চট্টোপাধ্যায়। ব্যারাকপুর কেন্দ্রে ভোট এবার জমজমাট। ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেস ও বামেরা প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়েছে। বিজেপির সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে উঠে এসেছে অর্জুন সিংয়ের নাম। কংগ্রেস ও বামেদের জোট ভেস্তে যাওয়ায় ব্যারাকপুর কেন্দ্রে প্রার্থী দেবে কংগ্রেসও। চতুর্মুখী লড়াই হতে চলেছে এবার ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে। প্রচারে ঝড় তুলতে প্রস্তুত সব রাজনৈতিক দলই। তবে শেষ হাঁসি কে হাসবে তা জানা যাবে নির্বাচনের ফল ঘোষণার দিন।য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here