kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০। শেষতম যে ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তিনি কলকাতার গড়িয়ার নয়াবাদের বাসিন্দা। আপাতত তিনি পিয়ারলেস হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, তার ফুসফুসে অক্সিজেনের মাত্রা অনেকটাই কমে গিয়েছে। শারীরিক পরিস্থিতি সঙ্কটজনক হওয়ায় চিকিৎসকরা তাকে ভেন্টিলেশনে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, গড়িয়ার নয়াবাদের ৬৩ বয়সী ওই ব্যক্তি গত ১৫ মার্চ পূর্ব মেদিনীপুরের এগরায় একটি বিয়েবাড়িতে গিয়েছিলেন। এগরার বিশিষ্ট হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ডাক্তার সুভাশিস মাইতির ছেলের বিয়েতে যোগ দেওয়ার জন্য তিনি সেখানে যান। জানা গিয়েছে, এই বিয়ের অনুষ্ঠানে আমেরিকা থেকে এক আমন্ত্রিত অতিথি এসেছিলেন। মনে করা হচ্ছে, নয়াবাদের ওই ব্যক্তি আমেরিকা থেকে আসা সেই আমন্ত্রিতের সংস্পর্শে আসার পরেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ওই বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠান শেষে নয়াবাদের ওই ব্যক্তি দিঘায় ঘুরতে যান। দিঘায় গিয়ে তিনি ভালরকম অসুস্থ হয়ে পড়েন। সেখান থেকে আবার তিনি ওই বিয়েবাড়িতে ফিরে আসেন। সুস্থ না হওয়ায় ওই বিয়ে বাড়ি থেকে তাকে দ্রুত কলকাতায় পাঠানো হয় চিকিৎসার জন্য। কলকাতায় ফিরে তিনি এক চিকিৎসককে দেখান। দেখা যায়, তাঁর টাইফয়েড হয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে এরপর দ্রুত তাকে ভর্তি করা হয় পিয়ারলেস হাসপাতালে। সেখানে তার শারীরিক পরীক্ষা হওয়ার পর দেখা যায় তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। আপাতত তিনি পিয়ারলেস হাসপাতাল সঙ্কটজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

এদিকে, এগরার যে বিয়েবাড়িতে ওই ব্যক্তি এসেছিলেন সেই বিয়েবাড়ির সম্পর্কে খোঁজখবর শুরু করেছে প্রশাসন। দেখা হচ্ছে, ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে কারা কারা এসেছিলেন। স্বাভাবিক ভাবেই বেশ ভালরকম আতঙ্ক ছড়িয়েছে সেদিন বিয়ে বাড়িতে আসা লোকজনের মধ্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here