kolkata bengali news

ডেস্ক: চিরাচারিত বামপন্থী পন্থা ছেড়ে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে জনগণের কাছে একটি আবেদন করেছিলেন কানহাইয়া কুমার। আর তাতেই মাত্র ৩০ ঘণ্টায় উঠলো ৩০ লক্ষ টাকা। এই অভূতপূর্ব ঘটনায় হতবাক দেশের তাবড় তাবড় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা।

বিজেপিকে জোর টক্কর দিতে বিহারের বেগুসরাই থেকে এবার বামেদের (সিপিআই) প্রার্থী হয়েছেন ছাত্রনেতা কানহাইয়া কুমার। লোকসভার প্রার্থী হিসাবে তাঁর নাম ঘোষণা হওয়ার পরই প্রচারের মাঠে নেমে পড়েন তিনি। জনসংযোগের পাশাপাশি জোরদার প্রচার চালান সোশ্যাল মিডিয়াতেও। তবে লড়াইয়ের মাঠে নামার জন্য প্রয়োজন অর্থ। তাই আর্থিক সাহায্য পেতে বামেদের চেনা ‘কৌটা’ ছেড়ে অন্যপথে আর্থিক সাহায্যের আবেদন করেন কানহাইয়া। ডিজিটাল মাধ্যমকে হাতিয়ার করে মানুষের কাছে আবেদন জানান সংগঠনকে সাহায্যের।

 

লোকসভার লড়াইয়ে বেগুসরাই থেকে প্রার্থী হিসাবে ঘোষিত হওয়ার পর দুইদিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে আসে কানহাইয়া কুমারের একটি ভিডিও। কয়েক মিনিটের ওই ভিডিওতে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে কানহাইয়া বলেন, ‘আপনারা জানেন এই মুহূর্তে দেশ কোন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আমাদের লোকতন্ত্রের উপর হামলা করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত। আমাদের সংবিধানের মূল বিষয় ধর্ম নিরপেক্ষতা, ন্যায়, সমানাধিকার। সেখানে প্রতি মুহূর্তে আক্রমণ চলছে। এই যে লোকসভার লড়াই, সেখানে একদিকে নোটতন্ত্র ও অন্যদিকে লোকতন্ত্র। লোকতন্ত্রের পক্ষে যারা রয়েছেন, সেই বিশাল সংখ্যক মানুষের কাছে আমার আবেদন ২০১৯ লোকসভার লড়াই এক ঐতিহাসিক লড়াই। বিগত পাঁচ বছরে দেশে যে ঘৃণা ছড়ানো হয়েছে, দুর্বলের উপর আক্রমণ হয়েছে, তার বিরুদ্ধে লড়াই। এই লড়াইয়ে যার যা ক্ষমতা তাই নিয়ে সঙ্গ দিন, লেখক হলে লিখুন, সাংবাদিক হলে সরকারকে প্রশ্ন করুন।’

একইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘এই লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যেতেই আমি লোকসভার ময়দানে। আমি চাই আপনারা আমায় সমর্থন দিন। স্বাভাবিকভাবে বেগুসরাইয়ের যারা ভোটার তাঁরা আমায় ভোট দেবেন। আপনারাও আমাদের সমর্থন দিন। আমার আপনাদের সাহায্যের প্রয়োজন। কারণ এই লড়াই কোনও একজন মানুষের বিরুদ্ধে নয়, এক বিচার ধারার নয়। এই লড়াই সত্য ও মিথ্যার লড়াই, দাবি ও লুঠের লড়াই। লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আপনারা আমাদের সাহায্য করুন। কোনও সাহায্যই ছোট নয়, এক টাকার সাহায্যও সাহায্য। এক হাজার টাকার সাহায্যও সাহায্য।’ সবশেষে অর্থিক সাহায্যের জন্য নিজেদের ওয়েবসাইটও প্রকাশ করেন কানহাইয়া www.ourdemocracy.in।

কানাহাইয়ার এই আবেদনে মাত্র ৩০ ঘণ্টার মধ্যে সাড়া দেন দুই হাজার তিনশোরও বেশি মানুষ। ক্রাউড ফান্ডিংয়ের জেরে তহবিলে জমা হয়েছে প্রায় ৩০ লক্ষ ২ হাজার টাকা। এর মধ্যে একাই পাঁচ লক্ষ টাকা দিয়েছেন মহেশ্বর পেরি নামক এক ব্যক্তি। সাধারণ মানুষের এই বিপুল সাড়া পেয়ে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত বাম নেতৃত্ব।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here