তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় থেকে উদ্ধার তাজা বোমা, চাঞ্চল্য নারায়ণগড়ে

0
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, মেদিনীপুর: তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় থেকে উদ্ধার হল তাজা বোমা। এক-আধটি নয়, একেবারে ৬টি তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের নারায়ণগড়ের তেঁতুলিয়া ভূমজান গ্রামে। স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে শাসকদলের কার্যালয় থেকে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। যদিও এটা বিজেপির ষড়যন্ত্র বলে দাবি জানিয়েছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। তবে এই ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে সরব হয়েছে গ্রামবাসীরা। পুলিশকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভও দেখায় তারা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন ভোরে হঠাৎই তৃণমূলের দলীয় কার্যালয় থেকে একটি জোরালো বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনতে পান তেঁতুলিয়া ভুমজান গ্রামের বাসিন্দারা। আতঙ্কে সকলে ঘর থেকে বেরিয়ে ওই কার্যালয়ের সামনে ছুটে যেতেই দেখেন, মুখে কালো কাপড় পড়া বেশ কিছু দুষ্কৃতী তৃণমূলের কার্যালয় থেকে বেরিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে। বিস্ফোরণটি যে তৃণমূলের ওই কার্যালয়ের ভিতরেই হয়েছে, তা বুঝতে অসুবিধা হয়নি গ্রামবাসীদের। সঙ্গে সঙ্গে তারা স্থানীয় থানায় খবর দেয়। তারপর নারায়ণগড় খানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিস্ফোরণের কারণ খুঁজতে তৃণমূল কার্যালয়টির ভিতরে তল্লাশি শুরু করে। পুলিশি তল্লাশিতেই বেরিয়ে আসে তরতাজা ৬টি বোমা উদ্ধার। কীভাবে শাসকদলের কার্যালয়ের ভিতর বোমা এল তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

গ্রামবাসীদের অনুমান, তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়টিতে সারারাত বোমা বাধার কাজ চলছিল। কোনও কারণে এদিন ভোরে একটি বোমা ফেটে যাওয়ায় বিস্ফোরণটি ঘটে। কিন্তু পুলিশের নজর এড়িয়ে এতবড় কাণ্ড কীভাবে ঘটল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে গ্রামবাসীরা। পুলিশকে ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায় তারা। গোটা ঘটনা তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ। যদিও দলীয় কার্যালয়ের ভিতর বিজেপি কর্মীরাই বোমা রেখে গিয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব।

উল্লেখ্য, নারায়ণগড়ের গ্রামে তৃণমূলের কার্যালয়ে বোমা মজুত বা বিস্ফোরণের ঘটনা এটাই প্রথম নয়। বছরখানেক আগেই নারায়ণগড় ব্লকের মকরামপুরে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে বিস্ফোরণের ঘটনায় ৩ তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু হয়েছে। দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে বোমা মজুত করার অনেক অভিযোগও রয়েছে। এব্যপারে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বও বহুবার সরব হয়েছে। কিন্তু তারপরেও অবস্থার বদল ঘটেনি। পুলিশের মদতেই নারায়ণগড় কার্যত বারুদের স্তূপে পরিণত হচ্ছে বলেও দাবি জানিয়েছে বিজেপি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here