Home Featured বন্দুক উঁচিয়ে ছুটছে ডাকাতরা, পিছু ধাওয়া জনতার

বন্দুক উঁচিয়ে ছুটছে ডাকাতরা, পিছু ধাওয়া জনতার

0
বন্দুক উঁচিয়ে ছুটছে ডাকাতরা, পিছু ধাওয়া জনতার
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি : সাতসকালে শ্যুটআউট! সিউড়ি শহরের জনবহুল রাস্তায় বন্দুক উঁচিয়ে দৌড় ডাকাতদলের। পিছন পিছন ধাওয়া শহরবাসীর। ধরা পড়ার ভয়ে পরপর গুলি ডাকাতদলের। গুলিবিদ্ধ টোটোচালক। সোমবার সকালের ঘটনায় স্তম্ভিত শহরবাসী।

ঘড়িতে সকাল ৯টা। সোমবারের সকালে সবে আড়মোড়া ভেঙে কাজে ফিরছে শহর সিউড়ি। আচমকাই পাঁচ-ছ’জন ডাকাতের একটি দল হানা দেয় সিউড়ির টিকাপাড়ার একটি বহুজাতিক ঋনদানকারী সংস্থায়। নিরাপত্তারক্ষীদের কানে বন্দুক ঠেকিয়ে শাটার খুলে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। নিরাপত্তারক্ষীরা নির্দিষ্ট কৌশলে শাটার খোলায় বেজে ওঠে সংস্থার সাইরেন। বেগতিক বুঝে বাইকে চড়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। নিরাপত্তারক্ষীদের চিৎকার শুনে তাদের ধাওয়া করতে থাকেন আশপাশের মানুষ। মুর্হুমুর্হু গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা।  

ঋনদানকারী সংস্থার নিরাপত্তারক্ষী মিঠুন মন্ডল বলেন,  পাঁচ-ছ’জন ডাকাতের দল ঢুকেছিল অফিসে। সকলের হাতেই ছিল বন্দুক। আমাদের কানে বন্দুক ঠেকিয়েছিল। অফিসের ব্যবস্থা মতো সাইরেন বেজে উঠলে সবাই পালায়। দুষ্কৃতীরা হিন্দিতে কথা বলছিল।

স্থানীয় সূত্রে খবর, দুষ্কৃতীদের গুলিতে জখম হন মোবারক খান নামে এক টোটোচালক। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে দুষ্কৃতীরা এক ব্যক্তির বাইক ছিনতাই করে পালায়। মাটিতে তখনও পড়ে গুলির খোল, তাজা রক্তের দাগ।  

প্রত্যক্ষদর্শী অমল দাস, মুস্তাক আহমেদরা বলেন, চোখের সামনে এভাবে বন্দুক উঁচিয়ে গুলি ছোঁড়া জীবনে  দেখিনি! আমরা আতঙ্কিত। দুষ্কৃতীদের প্রত্যেকের মুখেই মাস্ক ছিল। খবর পেয়ে এলাকায় আসে পুলিশ। দুষ্কৃতীদের খোঁজে শুরু হয়েছে তল্লাশি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here