সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পেলেই রাম মন্দির বানাবে কংগ্রেস, বিতর্ক উস্কে বললেন ডালু

0
92

নিজস্ব প্রতিবেদক, মালদা: লোকসভা ভোটের প্রচারের সময় বিজেপিকে ভোট দিতে বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন কংগ্রেস সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী ওরফে ডালু৷ সাফ জানিয়ে দিয়েছিলেন, আমাকে অর্থাৎ কংগ্রেসকে ভোট না দিতে চাইলে বিজেপিকে ভোট দিন। তৃণমূলকে নয়। লোকসভা ভোটের আগে এই প্রচারের সময় এই মন্তব্য করে রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে আলোড়ন তুলেছিলেন গনিখানের ভাই তথা কংগ্রেস সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী ওরফে ডালু। এবার রামমন্দির ইস্যুতে মুখ খুলে ফের বিস্ফোরণ ঘটালেন তিনি। জেলায় কংগ্রেসের পরাজয়ের পর্যালোচনায় বসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ডালুবাবু বলেন “সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পেলেই রামমন্দির গড়তে সবার আগে এগিয়ে যাবে কংগ্রেস। আমরা বলব, গড়ো মন্দির। আমাদের কোনও আপত্তি নেই। দেশের লোক যদি চায় তবে ওটা হবেই। তা আমাদের পছন্দ হোক বা না হোক।”
জেলা ও রাজ্যের পাশাপাশি দেশেও কংগ্রেসের খারাপ ফলের বিষয়টি মেনে নেন তিনি।

তিনি স্বিকার করেণ, মানুষের সঙ্গে তাঁদের যোগাযোগ আর আগের মতো নেই। দলের প্রতি দায়বদ্ধ এমন লোকজনেরও অভাব দেখা দিয়েছে। তবে তিনি আশাবাদী, কংগ্রেস আবার ঘুরে দাঁড়াবে। লোকসভা ভোটের প্রচারের সময় বিজেপিকে ভোট দিতে বলার প্রসঙ্গে ডালুবাবু বলেন, পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর থেকেই তৃণমূলের বিকল্প খুঁজছিল সাধারণ মানুষ। মানুষ ভেবেছে কংগ্রেস এখনও তৃণমূলের বিকল্প হিসেবে তৈরি নয়। তাই তারা বিজেপিকে ভোট দিয়েছে। কিন্তু ভোটে জিতে বিজেপি যে ট্রেন্ড ব্যবহার করছে তা দেশের পক্ষে, খুব খারাপ।

আবেগে ভর করে দেশ চালানো যায় না। পর্যালোচনা বৈঠকে ডালুবাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা কংগ্রেস সভাপতি মুস্তাক আলম সহ অন্যান্য নেতারা। ভোটের নিজেদের হারের কথা স্বীকার করে ডালুবাবু বলেন, বর্তমানে তাঁরা মানুষের কাছ থেকে কিছুটা দূরে সরে গেছেন। তাঁরা মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারছেন না। তার ওপর এখন দলে দায়বদ্ধ কর্মীর সংখ্যা অনেকটা কমে গিয়েছে। ফলে একটা শূন্যতা তৈরি হয়েছে সাধারণ মানুষ ও দলের মধ্যে। দেশে বিজেপির দ্বিতীয়বার ব্যাপক উত্থান হয়েছে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here