আজ শহরের ৭০ ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন, স্পিড বোট থেকে সিসিটিভি, নজরদারি তুঙ্গে

0
729
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: পুজো শেষ, সিঁদুরখেলা, বরণের পালা শেষ করে মা দুর্গা পাড়ি দিচ্ছেন কৈলাসে৷ বিকেল হতেই বিভিন্ন প্রতিমা ঘাটমুখী৷ সাধারণত সবার আগে বাড়ির ঠাকুর ভাসান হয়৷ তারপরে একে একে ঘাটগুলিতে ভিড় জমাতে থাকে বারোয়ারি পুজোগুলি৷ ইতিমধ্যে বাবুঘাটে ভিড় জমতে শুরু করেছে৷ আজ, মঙ্গলবার দশমী থেকে শহরের প্রায় ৭০টি ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন হওয়ার কথা। এর মধ্যে রয়েছে গঙ্গার ২৪টি ঘাটও। লালবাজার সূত্রের খবর, এ বার মঙ্গলবার থেকে চার দিন ধরে প্রতিমা নিরঞ্জন চলবে। বাড়ি ও বারোয়ারি পুজো মিলিয়ে শহরে প্রায় চার হাজারের মতো পুজো হয়। দশমীতে বড় কোনও ক্লাবের প্রতিমা বিসর্জন না হলেও ছোট ছোট ক্লাব এবং বাড়ির প্রতিমা জলে পড়বে বলে মনে করছে পুলিশ।

পুজোর রেশ আরও কিছুটা টেনে নিয়ে যেতে অনেক বড় পুজো আজ ঠাকুর ভাসান দেয় না৷ তবে আজ বেশির ভাগ পুজোর ভাসান হওয়ার কথা৷ কলকাতা পুলিশ বড় চ্যালেঞ্জের মুখে৷ পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিসর্জন চলাকালীন প্রতিদিন গঙ্গায় নজরদারি চালাবে কলকাতা রিভার ট্র্যাফিক পুলিশের স্পিডবোট। ওই স্পিডবোটে থাকবেন বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যেরাও। এ ছাড়া প্রতিটি ঘাটেই প্রস্তুত থাকবেন অসামরিক প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যেরা। পুলিশের দাবি, প্রতিটি ঘাটে সিসিটিভি-র পাশাপাশি ওয়াচ টাওয়ার বানানো হয়েছে।

অন্য বারের মতো এ বারও গঙ্গার ঘাটগুলি থেকে প্রতিমার কাঠামো তোলার জন্য পুরসভার তরফে ক্রেন রাখা হবে। যাতে দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের নির্দেশ মতো প্রতিমা বিসর্জন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কাঠামো জল থেকে তুলে ফেলা যায়। সব মিলিয়ে আয়োজন তুঙ্গে৷ ভালোয় ভালোয় পুজো মিটেছে৷ কলকাতা পুলিশ এখন নিরঞ্জন নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে পারলে ফুল মার্কস পেয়ে উত্তীর্ণ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here