নিজস্ব প্রতিবেদক, কোচবিহার: মা বিজেপি প্রার্থী, তাই মেয়েকে মারধরের অভিযোগ উঠল দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহার ১ব্লকের গুড়িয়াহাটি-২ গ্রাম পঞ্চায়েত-এর ইন্দ্রজিৎ কলোনি এলাকায়। ঘটনায় আহত বিজেপি প্রার্থীর মেয়ে শিলা দাস বর্তমানে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। ঘটনায় ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

গুড়িয়াহাটি-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৫ নং বুথে বিজেপি প্রার্থী স্থানীয় বুথ সভাপতি লক্ষ্মী দাস। তাঁর অভিযোগ, মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর থেকে তিনি যখন বাড়িতে থাকেন না, তখন কিছু দুষ্কৃতী এসে দল বেঁধে এসে তাঁর মেয়েকে নানা ভাবে উতক্ত্য করে। বলে, ‘মা কে মনোনয়ন পত্র তুলে নিতে বলবি। আর পার্টি অফিসে দেখা করতে বলবি।’ মেয়ে কোন পার্টি অফিস জিজ্ঞাসা করলে তখন তারা কিছু না বলে চলে যায়।

বারবার শাসানি এবং হুমকির পর বুধবার শেষ পর্যন্ত তাই হয় যেই ভয় পাচ্ছিলেন লক্ষ্মীদেবী। বুধবার রাতে তিনি যখন প্রচারে বের হন, সেই সময় তাঁর মেয়ে মামাবাড়ি যাচ্ছিল। লক্ষ্মীদেবীর অভিযোগ, তখন দুটি ছেলে স্কুটি করে এসে তাঁর মেয়েকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এই দুর্ঘটনায় মাথায় ও বুকে আঘাত লেগেছে লক্ষীদেবীর মেয়ের। বিজেপি প্রার্থী আরও জানান, ছেলেগুলো ধমক দিয়ে তাঁর মেয়েকে বলেছে, ‘মা’কে বলবি মনোনয়ন পত্র তুলে নিতে আর বিজেপি ছেড়ে দিতে। না হলে এরপর নিয়ে গিয়ে হাথ-পা ভেঙ্গে দেব।’

লক্ষ্মীদেবীর অনুমান, শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই রয়েছে এই কাজের পিছনে কাজ তৃনমূল কংগ্রেসের। তবে বিজেপি প্রার্থীর এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন কোচবিহার ১ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি খোখন মিয়া। তাঁর দাবি, ঘটনার সাথে তৃণমূল কংগ্রেস কোনও ভাবেই যুক্ত নয়। তিনি বলেন, বিজেপি নিজেদের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে তৃণমূল কংগ্রেসের নাম জড়ানোর চেষ্টা করছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here