bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সম্পত্তির লোভে মায়ের মাথা থেঁতলে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠল মেয়ের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বিধাননগর দক্ষিণ থানা এলাকার জলবায়ু বিহার কমপ্লেক্সে। অভিযুক্ত পলাতক মেয়ে ঋতুপর্ণার খোঁজে সন্ধান পেতে তল্লাশি চালাচ্ছে বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ। খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন তারা মঙ্গলবার জলবায়ু বিহারের একটি ফ্ল্যাটের দ্বিতীয় তলের সি৫৭ ফ্ল্যাট নম্বারের বাসিন্দা দিপালী প্রতিহারকে দেখতে পায়। তিনি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে আছেন। তাঁর পাশে তাঁর মেয়ে ঋতুপর্ণা চিৎকার-চেঁচামেচি করছে। এরপর ঘটনার চোখের সামনে দেখে স্থানীয়রা বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশকে খবর দেওয়া দেন। পুলিশ রক্তাক্ত অবস্থায় দিপালীকে উদ্ধার করে বিধাননগরের কলম্বিয়া এশিয়া হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেয়। হাসপাতালে ভর্তি করার সময় তাঁর সঙ্গে ছিল তাঁর মেয়ে ঋতুপর্ণা। যিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অধ্যাপিকা কিন্তু পুলিশের নজর এড়িয়ে হাসপাতাল থেকেই চম্পট দেয় ঋতুপর্ণা।

ঘটনার তদন্ত শুরু করতেই পুলিশ জানতে পারে ডিভোর্সি ঋতুপর্ণা দীর্ঘদিন ধরেই তার মা-বাবার ফ্লাটে থাকছিল। কিছুদিন আগেই সম্পত্তির লোভে সে তার বাবা সুশান্ত প্রতিহারকে ঘর থেকে বের করে দেয়। সুশান্তবাবু এক আত্মীয়ের কাছে উড়িষ্যায় থাকছেন। সম্পত্তি দখলের চেষ্টায় তার পথের শেষ কাঁটা মা দিপালীকে সরিয়ে দিতেই আজ তাঁর মাথায় ভারী জিনিস দিয়ে বেশ কয়েকবার আঘাত করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে দিপালী দেবীর সঙ্গে তাঁর মেয়ে ঋতুপর্ণার প্রায়ই গন্ডগোল লেগে থাকত। ডিভোর্সের পর বেশ কয়েক বছর ধরেই ঋতুপর্ণা তার মায়ের সঙ্গে থাকছিল। ঋতুপর্ণা এলাকায় ঝগড়াটে মহিলা বলে পরিচিত। তার মানসিক সমস্যা রয়েছে বলেও অনেকের দাবি। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে সুশান্তবাবু অবসরপ্রাপ্ত। তিনি আগে ইঞ্জিনিয়ারিং পেশার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। পারিবারিক সম্পত্তি দখলের কারণে মায়ের ওপর আক্রমণ চালিয়েছে মেয়ে এমনটাই পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। ঋতুপর্ণার সন্ধানে তল্লাশি চালাচ্ছে বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here